ব্রেকিং:
Home » খেলা » আমির-সরফরাজের দাপটে শ্রীলঙ্কাকে বিদায় করে সেমিফাইনালে পাকিস্তান

আমির-সরফরাজের দাপটে শ্রীলঙ্কাকে বিদায় করে সেমিফাইনালে পাকিস্তান

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে আজকের ম্যাচটি পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা উভয়ের জন্যই ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচ ছিল। সমীকরণটি এমন ছিল যে আজ যারা জিতবে তারা চলে যাবে সেমিফাইনালে। আর যারা হারবে তারা বিদায় নিবে টুর্নামেন্ট থেকে।

এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে জয় তুলে নিল পাকিস্তান। সোমবার কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন্সে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে শ্রীলঙ্কাকে তিন উইকেটে হারালো তারা। আগামী ১৪ জুন কার্ডিফে প্রথম সেমিফাইনাল ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান।

আজ পাকিস্তানের পক্ষে অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ ৬১ রান করে অপরাজিত থাকেন। আর ওপেনার ফখর জামান করেন ৫০ রান। ওয়ানডে ক্রিকেটে এটি ফখর জামানের প্রথম অর্ধশত। শ্রীলঙ্কার পক্ষে নুয়ান প্রদ্বীপ ৩টি, সুরঙ্গা লাকমল ১টি, থিসারা পেরেরা ১টি ও লাসিথ মালিঙ্গা ১টি করে উইকেট নেন।

পাকিস্তান ব্যাটিংয়ে নেমে আজ দারুণ সূচনা করে। ওপেনিং জুটিতে ৭৪ রানের পার্টনারশীপ গড়ে তারা। ইনিংসের ১২তম ওভারে নুয়ান প্রদ্বীপের বলে আসেলা গুনারত্নের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ফখর জামান। ৩৬ বল খেলে ৫০ রান করেন তিনি। এরপর ১৬তম ওভারে নুয়ান


প্রদ্বীপের বলে ধনঞ্জয়া ডি সিলভার হাতে ধরা পড়েন বাবর আজম। ১৮ বল খেলে ১০ রান করেন তিনি।

১৭তম ওভারে থিসারা পেরেরার বলে নুয়ান প্রদ্বীপের হাতে ধরা পড়েন মোহাম্মদ হাফিজ। পাঁচ বল খেলে এক রান করেন তিনি। ২০তম ওভারে সুরঙ্গা লাকমলের বলে কুসল মেন্ডিসের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন আজহার আলী। ৫০ বল খেলে তিনি করেন ৩৪ রান।

এরপর দলীয় ১৩১ রানে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে শোয়েব মালিককে ফেরান লাসিথ মালিঙ্গা। ২০ বল খেলে ১১ রান করেন তিনি। দলীয় ১৩৭ রানে নুয়ান প্রদ্বীপের বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ইমাদ ওয়াসিম। দলীয় ১৬২ রানে রান আউট হন ফাহিম আশরাফ। ১৫ বল খেলে ১৫ রান করেন তিনি।

এরপর সরফরাজ আহমেদ ও মোহাম্মদ জুটি বেঁধে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। দু’জনে মিলে ৭৫ রানের পার্টনারশীপ গড়েন। সরফরাজ আহমেদ ৬১ রান করে অপরাজিত থাকেন। আর মোহাম্মদ আমির ২৮ রান করে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৪৯.২ ওভারে ২৩৬ রান সংগ্রহ করে অলআউট হয়ে যায় অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজরা। শ্রীলঙ্কার দশটি উইকেটই নেন পাকিস্তানের পেসাররা।

শ্রীলঙ্কার পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেন নিরোশান ডিকওয়েলা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৯ রান করেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। পাকিস্তানের পক্ষে মোহাম্মদ আমির ২টি, জুনায়েদ খান ৩টি, হাসান আলী ৩টি ও ফাহিম আশরাফ ২টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: তিন উইকেটে জয়ী পাকিস্তান

শ্রীলঙ্কা ইনিংস: ২৩৬ (৪৯.২ ওভার)

(নিরোশান ডিকওয়েলা ৭৩, দানুশকা গুনাথিলাকা ১৩, কুসল মেন্ডিস ২৭, দিনেশ চান্দিমাল ০, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ৩৯, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ১, আসেলা গুনারত্নে ২৭, থিসারা পেরেরা ১, সুরঙ্গা লাকমল ২৬, লাসিথ মালিঙ্গা ৯*, নুয়ান প্রদ্বীপ ১; মোহাম্মদ আমির ২/৫৩, জুনায়েদ খান ৩/৪০, ইমাদ ওয়াসিম ০/৩৩, ফাহিম আশরাফ ২/৩৭, হাসান আলী ৩/৪৩, মোহাম্মদ হাফিজ ০/২৪)।

পাকিস্তান ইনিংস: ২৩৭/৭ (৪৪.৫ ওভার)

(আজহার আলী ৩৪, ফখর জামান ৫০, বাবর আজম ১০, মোহাম্মদ হাফিজ ১, শোয়েব মালিক ১১, সরফরাজ আহমেদ ৬১*, ইমাদ ওয়াসিম ৪, ফাহিম আশরাফ ১৫, মোহাম্মদ আমির ২৮*; লাসিথ মালিঙ্গা ১/৫২, সুরঙ্গা লাকমল ১/৪৮, নুয়ান প্রদ্বীপ ৩/৬০, থিসারা পেরেরা ১/৪৩, আসেলা গুনারত্নে ০/১৯, দানুশকা গুনাথিলাকা ০/২, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ০/৩)।

প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: সরফরাজ আহমেদ (পাকিস্তান)

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close