Home » আন্তর্জাতিক » ট্রাম্পের বেপরোয়া আচরণ : হার্ডলাইনে ইরান

ট্রাম্পের বেপরোয়া আচরণ : হার্ডলাইনে ইরান

ইরানের পরমাণু সমঝোতা নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সর্বশেষ ঘোষণাকে একটি আন্তর্জাতিক চুক্তিকে দুর্বল করার ‘বেপরোয়া প্রচেষ্টা’ বলে অভিহিত করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ।

ট্রাম্প তার ভাষায় ‘শেষবারের মতো’ ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকাকে বের করে নিচ্ছেন না বলে ঘোষণা দেয়ার পর জারিফ এ মন্তব্য করলেন।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শুক্রবার রাতে এক টুইটার বার্তায় বলেন, ট্রাম্প তার সর্বশেষ ঘোষণার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সমাজের সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতার ২৬, ২৮ ও ২৯ নম্বর অনুচ্ছেদ বিদ্বেষপূর্ণভাবে লঙ্ঘন করেছেন।


জারিফ বলেন, ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা নিয়ে আর কোনো আলোচনা হবে না। কাজেই বাগাড়ম্বর বাদ দিয়ে মার্কিন সরকারকে ঠিক ইরানের মতো এই সমঝোতা পুরোপুরি মেনে চলতে হবে।

এর আগে ট্রাম্প শুক্রবার তার ভাষায় ‘প্রচণ্ড অনীহা’ নিয়ে ঘোষণা করেন, ইরানের ওপর পরমাণু কর্মসূচি সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়টি তিনি চার মাসের জন্য স্থগিত রাখছেন। তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এটি হচ্ছে শেষ সুযোগ। আগামী ৪ মাসের মধ্যে ইউরোপীয় মিত্রদের সঙ্গে বৃহত্তর ঐক্য প্রতিষ্ঠা করে তিনি ইরানের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেবেন বলেও হুমকি দেন ট্রাম্প।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষ থেকে এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে ওয়াশিংটনকে সতর্ক করে দেয়ার পর ট্রাম্প তার এই অবস্থান ঘোষণা করেন।


ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, আন্তর্জাতিক তত্ত্বাবধানে সই হওয়া পরমাণু সমঝোতার বাইরে তেহরান কোনো ইস্যুতে নতুন করে আর কোনো প্রতিশ্রুতি দেবে না। ২০১৫ সালে সই হওয়া সমঝোতা যখন পরিবর্তনের জন্য আমেরিকা বার বার চাপ সৃষ্টি করছে তখন ইরান এ কথা বলল।

শনিবার এক বিবৃতিতে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আরো একবার এ সমঝোতার আওতায় ইরানকে নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখার কথা ঘোষণা করেছেন। অভ্যন্তরীণ ঐক্য ও আন্তর্জাতিক সমর্থনের কারণে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, ইসরাইল ও কট্টর যুদ্ধকামী জোটের প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে।

শুক্রবার হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে, শেষবারের মতো প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা থেকে বিরত থাকলেন। তবে আগামী ১২০ দিনের মধ্যে ইউরোপীয় মিত্রদের সঙ্গে বৃহত্তর ঐক্য প্রতিষ্ঠা করে তিনি ইরানের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেবেন।


হোয়াইট হাউজ এ ঘোষণা দিলেও ইউরোপীয় ইউনিয়ন, চীন ও রাশিয়া পরিষ্কার করে বলেছে, ইরানের সঙ্গে সই হওয়া পরমাণু সমঝোতা ঠিকমতো কাজ করছে এবং এ নিয়ে তারা নতুন করে আলোচনায় অংশ নেবে না। ইরানও অত্যন্ত দৃঢ়ভাবে বলেছে, পরমাণু সমঝোতা নিয়ে আর কোনো আলোচনা হবে না। আজকের বিবৃতিতে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সে কথা আবারো উল্লেখ করেছে।
dailynayadiganta

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close