Home » বিনোদন » তামিল-তেলেগু ভাষায় আয়নাবাজি রিমেক নিয়ে যা বললেন চঞ্চল

তামিল-তেলেগু ভাষায় আয়নাবাজি রিমেক নিয়ে যা বললেন চঞ্চল

ঢাকাই চলচ্চিত্রে ২০১৬ সালের আলোচিত নাম ‘আয়নাবাজি’। অমিতাভ রেজা পরিচালিত এই ছবিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। তিনি শরাফাত করিম আয়না নামের চরিত্রে কাজ করেছিলেন।

দারুণ খবর হলো এবার তেলেগু ছবিতেও তৈরি হয়েছে একই চরিত্রের চমক। ‘গায়ত্রী’ নামের ছবিতে চঞ্চলের সেই চরিত্রে দেখা গেছে তেলেগু অভিনেতা মোহন বাবুকে। তেলেগু ভাষায় ‘গায়ত্রী’ নামের এ ছবি গত ৯ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পেয়েছে। এটি নির্মিত হয়েছে বাংলাদেশের ‘আয়নাবাজি’ সিনেমার কপিরাইট নিয়ে।


ভারতীয় চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শ্রী লক্ষ্মী প্রসন্ন পিকচার্স ২০১৭ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে তামিল ও তেলেগু ভাষায় নির্মাণের জন্য ‘আয়নাবাজি’র স্বত্ব কিনে নেয়। তারই প্রথম কিস্তি হিসেবে শুক্রবার তেলেগু ভাষায় মুক্তি পেলো ‘গায়ত্রী’।

ছবিটির খবর জেনেছেন চঞ্চল চৌধুরীও। এই ব্যাপারে তিনি রোববার দুপুরে একটি জনপ্রিয় অনলাইন নিউজকে বলেন, ‘বিদেশি ভাষায় ‘আয়নাবাজি’ রিমেক হওয়াটা আমাদের ইন্ডাস্ট্রির জন্য দারুণ ব্যাপার। প্রচুর অভিযোগ যে এখন ঢাকাই সিনেমাতে নানা দেশের সিনেমার গল্প কপি করা হয়। সেদিক থেকে আমাদের দেশের একটি সিনেমার গল্প নিয়ে অন্য দেশে সিনেমা হচ্ছে এটা খুবই ইতিবাচক ও অনুপ্রেরণার। ভালো মৌলিক গল্পের সিনেমা হলে সারা পৃথিবী এভাবেই আমাদের অনুসরণ করবে। আমাদের সেই সামর্থ্য রয়েছে। কেবল চর্চাটা ধারাবাহিক করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘তেলেগু ও তামিল ভাষায় ‘আয়নাবাজি’ রিমেক হবার কথা রয়েছে। এরইমধ্যে তেলেগু ভাষার ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। আশা করছি ছবিটি বাংলাদেশের মতো সেখানেও সুপারহিট হবে। সুযোগ হলে ছবিটি দেখবো আমি।’

এদিকে ‘আয়নাবাজি’ ছবির নির্মাতা অমিতাভ রেজা তেলেগু ভাষায় ছবিটি মুক্তি পাওয়ায় আনন্দ প্রকাশ করেছেন।

কপিরাইট কিনে নিলেও ‘আয়নাবাজি’র ছায়া থেকে নতুনভাবে ‘গায়ত্রী’ ছবিটির চিত্রনাট্য করেছেন ডায়মন্ড রত্ন বাবু। ১২৫ মিনিটের এ ছবিটি পরিচালনা করেছেন ম্যাডান রামিজানি।


থ্রিলারধর্মী চলচ্চিত্র ছবিটির পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরী ও প্রযোজক কনটেন্ট ম্যাটারস লিমিটেড। ছবির কাহিনী ও চিত্রনাট্য লিখেছেন গাউসুল আলম শাওন ও অনম বিশ্বাস। এই চলচ্চিত্রে মূল চরিত্রগুলোতে অভিনয় করছেন চঞ্চল চৌধুরী, মাসুমা রহমান নাবিলা এবং পার্থ বড়ুয়া। কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামীদের বদলে ভাড়ায় জেলখাটা আয়না (চঞ্চল), তার বান্ধবী হৃদি (নাবিলা) এবং ক্রাইম রিপোর্টার সাবেরের (পার্থ) জীবনের প্রেম-আনন্দ-বেদনা নিয়ে অপরাধ জগতের ছায়ায় এগিয়েছে চলচ্চিত্রটির কাহিনী।

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close