ব্রেকিং:
Warning: mysql_query(): Unable to save result set in /home/dnn/public_html/wp-includes/wp-db.php on line 1889
Home » আন্তর্জাতিক » তুরস্কের সেনাবাহিনীর ওপর আক্রমণ, উভয়পক্ষে ব্যাপক গুলি বিনিময়

তুরস্কের সেনাবাহিনীর ওপর আক্রমণ, উভয়পক্ষে ব্যাপক গুলি বিনিময়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইদলিব প্রদেশ সীমান্তে তুরস্ক সেনা ও সিরীয় আল-কায়দা উগ্রবাদীদের মধ্যে গুলি বিনিময় হয়েছে। একটি পর্যবেক্ষক গ্রুপ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা এ কথা জানিয়েছে। আঙ্কারার শিগগিরই অভিযান শুরুর ঘোষণা দেয়ার এক দিন পর গুলি বিনিময়ের ঘটনাটি ঘটল। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যিপ এরদোগান শনিবার এক ঘোষণায় বলেন, আঙ্কারাপন্থী বিদ্রোহীরা উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় সিরীয় প্রদেশে উগ্রবাদী গ্রুপ হায়াত তাহরির আল-শামের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানে নেতৃত্ব দেবে।

পর্যবেক্ষণ সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস এবং প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছে, রোববার সকালে হায়াত তাহরির আল-শাম উগ্রবাদীরা সীমান্ত সংলগ্ন দেয়াল সরিয়ে তুরস্ক সেনাদের ওপর আক্রমণ করে। তুরস্কের সেনাদলও পাল্টা জবাব দেয়। অবজারভেটরি বলছে, উভয়পক্ষে ব্যাপক গুলি বিনিময় হলেও এটিকে এরদোগান ঘোষিত অভিযান বলে মনে হচ্ছে না। সামরিক সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে তুরস্কের প্রাইভেট টিভি চ্যানেল এনটিভি’র খবরেও গুলি বিনিময়ের কথা বলা হয়েছে। আফগানিস্তানে সিনিয়র তালেবান কমান্ডারসহ নিহত ৩ আফগানিস্তানের ফারাহ প্রদেশে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে সিনিয়র তালিবান কমান্ডার মোল্লা জহিরসহ তিন উগ্রবাদী নিহত হয়েছে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আজ এক বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা সিনহুয়া’র। বিবৃতিতে বলা হয়, “ফারাহ প্রদেশের পোস্ত রোড জেলার শিরান গ্রামে নিরাপত্তা বাহিনীর হামলায় সশস্ত্র তিন তালেবান সদস্য নিহত হয়।” নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরাও আহত হয়েছে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।
স্থানীয়দের মতে, মোল্লা জহির ছিল আলোচিত তালেবান উগ্রবাদী। তার প্রাণহানি ফারাহ প্রদেশ ও আশে-পাশের এলাকার উগ্রবাদীদের জন্যে বড় ধরণের ধাক্কা বলে মনে করা হচ্ছে। ডি আর কঙ্গোতে এডিএফ বিদ্রোহীদের হামলায় ৪০ জন নিহত ডি আর কঙ্গোর পূর্বাঞ্চলে নর্থ কিভু প্রদেশের বেনিতে শনিবার এলাইড ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস (এডিএফ)-এর হামলায় ৪০ জনেরও বেশি লোক প্রাণ হারিয়েছে। স্থানীয় নিরাপত্তা সূত্র এ কথা জানায়।

উগান্ডা সরকার এডিএফকে সন্ত্রাসী গ্রুপ হিসেবে বিবেচনা করে থাকে। এডিএফের মূল ভিত্তি উগান্ডা হলেও এর বিস্তার ডিআর কঙ্গো পর্যন্ত ছড়িয়েছে।

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close