ব্রেকিং:
Home » এক্সক্লুসিভ » দুঃস্বপ্নেও দেখেননি এমন রেকর্ডের মালিক হবেন মিরাজ

দুঃস্বপ্নেও দেখেননি এমন রেকর্ডের মালিক হবেন মিরাজ

বাংলাদেশের ক্রিকেটে তার আবির্ভাব বিস্ময় বালক হিসেবে। ছোট্ট ক্যারিয়ারে সেই প্রমাণ তিনি রেখে চলেছেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চলমান টেস্ট সিরিজে সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতিতে স্পিন আক্রমণের দায়িত্ব তার ওপরেই। দক্ষিণ আফ্রিকার উইকেট কখনই স্পিনারদের পক্ষে থাকে না। এবারও নেই। এই বিরূপ উইকেটেই এমন এক ‘রেকর্ড’ এর মালিক হলেন মেহেদী মিরাজ, যা তিনি হয়ত দুঃস্বপ্নেও দেখেননি!

১০ টেস্টের ছোট্ট ক্যারিয়ারে এই প্রথমবারের মত কোনো টেস্টে উইকেটশুন্য মিরাজ। শুধু এটুকুই নয়, সবচেয়ে বেশি রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকার বিব্রতকর রেকর্ডের ৩ নম্বরে স্থান এখন এই তরুণ অল-রাউন্ডারের দখলে! দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পচেফস্ট্রুম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৫৬ ওভারে ১৭৮ রান দিয়ে উইকট পাননি মিরাজ। দ্বিতীয় ইনিংসে ১১ ওভারে উইকেট নেই ৬৯ রান দিয়ে। দুই ইনিংস মিলিয়ে ২৪৭ রান দিয়ে উইকেটশুন্য তিনি!

তবে মজার ব্যাপার হলো, এই লজ্জার রেকর্ডের প্রথম নামটি দক্ষিণ আফ্রিকারই একজন স্পিনারের। তিনি ইমরান তাহির। ২০১২ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অ্যাডিলেড টেস্টে ২৬০ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন তিনি।
ভেঙেছিলেন ৫৪ বছর আগের রেকর্ড! ১৯৫৮ সালে পাকিস্তানি পেসার খান মোহাম্মদ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জ্যামাইকা টেস্টে ২৫৯ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন।

মিরাজের পরে চতুর্থ স্থানে আছেন আরেক প্রোটিয়া স্পিনার নিকি বোয়ে। ২০০৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কলম্বো টেস্টে এক ইনিংসেই ৬৫ ওভার বল করে ২২১ রান দিয়ে উইকেটশুন্য ছিলেন তিনি। তবে এই বিব্রতকর রেকর্ডে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে মিরাজই প্রথম। এর আগে ২০১০ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হ্যামিল্টন টেস্টে ১৬৮ রান দিয়ে উইকেটশুন্য ছিলেন এই পেসার।

তাই বলে এই এক ম্যাচ দিয়ে বাংলাদেশের ভবিষ্যত অল-রাউন্ডারকে খাটো করার সুযোগ নেই। উইকেটের বিষয়টা তো আছেই, তার ওপর দক্ষিণ আফ্রিকা সফররত বাংলাদেশ দলটি এখন পর্যন্ত অগোছালো, ছন্নছাড়া লাগছে। মিরাজ নিশ্চয়ই এই হতাশা ভুলে গিয়ে পরের ম্যাচেই বল হাতে জ্বলে উঠবেন।

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close