Home » রাজনীতি » দেশে-বিদেশে লাগাতার আন্দোলনের পরিকল্পনা বিএনপির

দেশে-বিদেশে লাগাতার আন্দোলনের পরিকল্পনা বিএনপির

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলার রায় সামনে রেখে দেশ-বিদেশে লাগাতার আন্দোলরে যেতে চায় বিএনপি। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ‘নেতিবাচক’ রায় হলে সর্বাত্মক প্রতিবাদের প্রস্তুতি নিয়েছে দলটি।দেশের ভেতর দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং স্থায়ী কমিটির সদস্যদের তত্ত্বাবধানে কর্মসূচি চলবে। দেশের বাইরে দলীয় নেতাকর্মীদের কর্মসূচি সরাসরি তদারকি করছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের বড় ছেলে ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

প্রতিকূল অবস্থা মোকাবেলায় এরই মধ্যে খালেদা জিয়া দলের স্থায়ী কমিটি, ২০ দলীয় জোটের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।দলের সিনিয়র নেতারা নিজেদের মধ্যে দফায় দফায় বৈঠক ছাড়াও কথা বলেছেন বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে।একই সঙ্গে জাতীয় নির্বাহী কমিটির বৈঠকটিকেও ভিন্ন বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। বিএনপির নির্বাহী কমিটির সভায় বাইরে থেকে আসা নেতাদের ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ঢাকায় থাকতেও নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলেও জানা গেছে।অন্যদিকে মায়ের সম্ভাব্য বিপদের আশঙ্কায় লন্ডনে তৎপর হয়েছেন তারেক রহমান।


বিএনপির যুক্তরাজ্য শাখার কার্যালয়ের নেতাদের মাধ্যমে অন্যান্য দেশের বিএনপির নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন ও প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা দিচ্ছেন তিনি।সৌদি আরব, জার্মানি, জাপান ও বেলজিয়ামসহ ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত বেশ কয়েকটি দেশে কয়েকজন পরীক্ষিত নেতাকে সুনির্দিষ্ট দায়িত্ব দিয়ে তৎপর থাকতে বলেছেন তারেক রহমান।তারেক রহমানের নির্দেশে ইতোমধ্যে বৃহস্পতিবার বিশ্বের ৩৫টি দেশে বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে প্রবাসী বিএনপি।

আর ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে আবার লাগাতার কর্মসূচিরও ঘোষণা দিয়েছে প্রবাসী বিএনপির ইউনিটগুলো।জানতে চাইলে বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাকিরুল ইসলাম খান শাকিল বলেন, ‘এটা সবার কাছে পরিষ্কার যে, কথিত দুর্নীতির মিথ্যা মামলায় সাজানো রায় ঘোষণা আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রাখার ষড়যন্ত্রের অংশ। কাজেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী বাংলাদেশি জনগণ পুরো দেশবাসীর মতোই উদ্বিগ্ন ও ক্ষুব্ধ।

‘এর বহিঃপ্রকাশ এশিয়া, ইউরোপ ও আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশে তীব্র ঠান্ডা ও প্রতিকূল আবহাওয়া উপেক্ষা করে নেতাকর্মীসহ সাধারণ জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধনের মতো কর্মসূচি পালন’ যোগ করেন তিনি।শাকিল বলেন, প্রাথমিকভাবে নেতাকর্মীরা বিভিন্ন দেশে কর্মসূচি পালন করে সংশ্লিষ্ট দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন।


বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সৌদি আরব বিএনপির সভাপতি আহমেদ আলী মুকিব পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের প্রত্যেকটি দেশে সুন্দর ও সফলভাবে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।বেলজিয়াম বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বাবু পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে অন্যায়ভাবে সাজা দিলে সরকার পতনে দেশে-বিদেশে একযোগে আন্দোলন শুরু হবে।

বেলজিয়াম বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বাবু বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে বাইরে রাখার ষড়যন্ত্র হচ্ছে।জানতে চাইলে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অন্যায় কোনো রায় নেতাকর্মীরা মেনে নেবে না। বিশ্বের সব দেশেই বিএনপির ইউনিট রয়েছে। তাদের সঙ্গে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিয়মিত যোগাযোগ আছে।


বিএনপি আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘অবস্থা ভালো না। যখন যেমন ব্যবস্থা নেয়া দরকার, বিএনপি সেভাবেই এখন দেশে এবং দেশের বাইরে ব্যবস্থা নেবে।’এবিষয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, প্রবাসী ইউনিটগুলোকে আমরা দেশ থেকে এখন আর তেমন কোনো নির্দেশ দিচ্ছি না। তারা যে যার অবস্থান থেকে তাদের নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

poriborton

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close