ব্রেকিং:
Home » জাতীয় » নোবেল কমিটির ফোন না পেয়ে বোরহান কবীরকে জুতাপেটা করতে চাইলেন হাসিনা

নোবেল কমিটির ফোন না পেয়ে বোরহান কবীরকে জুতাপেটা করতে চাইলেন হাসিনা

বাংলা ইনসাইডার নামক নিউজ পোর্টালের সম্পাদক সৈয়দ বোরহান কবীরের পরামর্শে লন্ডন সময় আজ সকাল ৮টা থেকেই ফোনের পাশে বসেছিলেন শেখ হাসিনা। দলীয় এবং পারিবারিক কাজে যুক্তরাজ্যে তার সংক্ষিপ্ত সফরের শেষ দিনটিতে অনেকগুলো কাজ করার কথা ছিল। যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের বিদ্যমান কোন্দল মিটমাট করা, বিচারপতি মানিক গ্রুপের সাথে দলীয় সাংবাদিক আব্দুল গাফফার চৌধুরীর কোন্দল মিটমাট করা ছাড়াও বোনের মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিকির নির্বাচনী খরচ হিসেবে প্রদত্ত টাকার উদ্বৃতাংশ সুইস ব্যাংকে প্রেরণের মত গুরুত্বপূর্ন কাজ ফেলে রেখে এভাবে ২ ঘন্টা ফোনের পাশে ঠায় বসে থাকার পরও নোবেল কমিটির কাছ থেকে কোন ফোন না পেয়ে এবং আন্তর্জাতিক পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ প্রচারাভিযান (আইসিএএন)কে ২০১৭ সালের নোবেল পুরষ্কার প্রদান করা হয়েছে জানতে পেরে রাগে ক্ষোভে ফেটে পড়েন শেখ হাসিনা।

ক্ষুব্ধ শেখ হাসিনা বাংলাদেশে তার ক্যাশিয়ার হিসেবে পরিচিত ‘জ’ অদ্যাক্ষরের একজন নিকটাত্মীয় ও শীর্ষ দলীয় নেতাকে ফোন করে নোবেল শান্তি পুরষ্কার প্রাপ্তিতে লবিং করার জন্য বোরহান কবীরকে দেয়া সমূদয় অর্থ ফেরত নিয়ে তাকে জুতাপেটা করার জন্য চিৎকার করতে থাকেন। এই সময় তাকে বলতে শোনা যায়, “ও আমার টাকা মেরেছে সেটা না হয় বুঝলাম, কিন্তু সকাল থেকে ফোনের পাশে বসে থেকে সময় নষ্ট করার কারণে যে গুরুত্বপূর্ন কাজগুলো করতে পারলাম না এর ক্ষতিপূরণ কে দেবে?”

বোরহান কবীরের ভূয়া খবরে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি যুক্তরাজ্য ভ্রমণের শেষদিনের গুরুত্বপূর্ন কাজগুলো না করতে পারার কারণেই প্রচণ্ড ক্ষেপে যান শেখ হাসিনা এবং বারবার বোরহান কবীরকে জুতাপেটা করার জন্য চিৎকার করতে থাকেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শেখ হাসিনার একজন সফরসঙ্গী জানান শান্তিতে নোবেল পুরষ্কার পাইয়ে দেবার কথা বলে ইতিপূর্বে আরো কয়েকজনের ব্যর্থতার পর এবার যোগ হলো সৈয়দ বোরহান কবীরের নাম।

সূত্র: dailybdtime

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close