Home » গল্প ও কৌতুক » ফেসবুকের জনপ্রিয় একটি ব্যাংক ডাকাতি দলের শিক্ষনীয় গল্প , পড়েই দেখুন ভাল লাগবে

ফেসবুকের জনপ্রিয় একটি ব্যাংক ডাকাতি দলের শিক্ষনীয় গল্প , পড়েই দেখুন ভাল লাগবে

ছোট বেলায় আমরা অনেকেই ইসপের গল্প পড়েছি যা আসলে ছিল নীতিকথা। এটা সেরকমি একটা গল্প যেটাতে বেশ কিছু নীতিকথা আছে।
.
একদল ডাকাত ব্যাংকে ঢুকল ডাকাতির জন্য। উপস্থিত গ্রাহক আর কর্মচারীরা বাধা দেবার চেষ্টা করল। ডাকাতেরা বলল ” ভাইসব, টাকা গেলে সরকারের যাবে, আর প্রাণ গেলে যাবে আপনার। আপনারাই বুঝুন কোনটা বাঁচাবেন” – এই কথা শুনেসবাই বসে গেল। ডাকাতরা নির্বিঘ্নে টাকা নিয়ে গেল l
.
*** শিক্ষণীয় : মানুষের মাঝে স্বার্থ ভিত্তিক বিভাজন সৃষ্টি হলে, তারা অন্যায় কাজ প্রতিরোধ করার সামর্থ্য হারিয়ে ফেলবে।
.
** ডাকাতেরা তাদের নিয়ে আসা বস্তা ভর্তি করে যতদূর সম্ভব টাকা নিয়ে আস্তানায় ফিরে গেল। যে ডাকাতের MBA ডিগ্রি ছিল সে বলল, এবার আমাদের দরকার আমরা কত টাকা লুট করলাম তা গুনে দেখা। সবচেয়ে প্রবীণ ডাকাত বলল ” ধুর, এত টাকা গুনতে তো অনেক কষ্ট হবে। একটু পরেই টিভিতে বলবে কত টাকা লুট হয়েছিল। আমরা তখন ই যেনে যাব।”
.
*** শিক্ষণীয় : অনেক ক্ষেত্রেই কাগুজে ডিগ্রির চেয়ে অভিজ্ঞতা মূল্য বেশী।
.
ঘটনা শুনে ব্যাংক প্রধান মহোদয় ব্যাংক পরিদর্শনে গেলেন। তিনি বললেন, ডাকাতেরা শুধু কয়েক বস্তা টাকাইতো মাত্র নিয়েছে। বেশির ভাগ টাকাই তো রয়েই গেছে, আর সেফ ডিপোজিট বক্সগুলোও তো আছে। আসেন আমরা কয়জন ওগুলো নিজেদের মাঝে ভাগ করে নেই। কেউ বুঝতেও পারবেনা।
.
***শিক্ষণীয় : যে যত উপরে, তাঁর চুরি ততো বড় এবং তা ধরা ছোঁয়ার বাইরে।
.
রাতে টিভিতে সংবাদ এলো, ব্যাংক থেকে ২০ কোটি টাকাসহ হাজার ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট। ডাকাতরা হাজারবার গুনেও তাদের বস্তায় ১ কোটি টাকার উপর পেলনা। আর স্বর্ণালঙ্কার তো তারা নিতেই পারে নি। বুঝতে পারল চোরের উপর বড় চোর আছে ।
.
যাই হোক, অবশেষে ডাকাতদল ধরা পড়ল, রিমান্ডে গিয়ে স্বীকারও করতে হল তারাই সব ডাকাতি করেছে। সবার
যাবজ্জীবন সাজাও হয়ে গেল।
.
***শিক্ষণীয় : চুরি করচস,জ্বেলে পঁচে মর কিন্তু বড় বড় চোর থেকে যায় ধরা ছোয়ার বাইরে। ( সংগৃহীত)

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close