ব্রেকিং:
Home » আন্তর্জাতিক » মুর্শিদাবাদে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, নদীতে তলিয়ে গেল যাত্রীবাহী বাস

মুর্শিদাবাদে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, নদীতে তলিয়ে গেল যাত্রীবাহী বাস

সাতসকালে মুর্শিদাবাদে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। ইসলামপুরের বালিরঘাটে ব্রিজের পাঁচিল ভেঙে নদী গর্ভে তলিয়ে গেল একটি যাত্রীবাহী বাস। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, কয়েকজন যাত্রী সাঁতরে পারে উঠতে পারলেও, অধিকাংশ যাত্রী নদীতে তলিয়ে গিয়েছেন। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় শুরু চলছে উদ্ধারকাজ। ঘটনাস্থলে রয়েছেন মহকুমাশাসক, বিডিও-সহ প্রশাসনের পদস্থ আধিকারিকরা। তবে এখনও পর্যন্ত দুর্ঘটনাগ্রস্থ বাসটির কোনও খোঁজ মেলেনি। অসমর্থিত সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই একজনের মৃতদেহ উদ্ধার

করা গিয়েছে।

শীতের দাপট কিছুটা কমেছে ঠিকই। তবে সকালে ঘন কুয়াশায় দৃশ্যমানতা বেশ কম থাকে। সেকারণে সম্ভবত বালিরঘাটে ব্রিজে ওই যাত্রীবাহী বাসটি দুর্ঘটনা কবলে পড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। বাসের এক যাত্রীর আবার দাবি, চালক নাকি মোবাইলে ব্যস্ত ছিলেন। তাই বালিরঘাট ব্রিজে বাসের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন তিনি। ভৈবর নদীতে তলিয়ে যায় বাসটি। এখন যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধার কাজে নেমেছেন পুলিশ ও প্রশাসনের আধিকারিকরা। উদ্ধারকাজে হাত লাগিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারাও। তবে এখনও পর্যন্ত দুর্ঘটনাগ্রস্ত বাসটির হদিশ মেলেনি। কয়েকজন যাত্রী সাঁতরে পারে উঠতে পারলেও, অধিকাংশ যাত্রীই নদী গর্ভে তলিয়ে গিয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। অসমর্থিত সূত্রে খবর, এখনও পর্যন্ত একজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা গিয়েছে।

প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে, বালিরঘাট ব্রিজে যে বাসটি দুর্ঘটনা কবলে পড়েছে, সেটি করিমপুর-বহরমপুর রুটে একটি সরকারি বাস। সোমবার সকালে যাত্রীদের নিয়ে ডোমকল থেকে বহরমপুর দিকের আসছিল বাসটি। আসার পথে, ইসলামপুরের বালিরঘাট ব্রিজে আমচকাই নিয়ন্ত্রণ হারান চালক। প্রথমে ব্রিজের পাঁচিলে ধাক্কা মারে বাসটি। এরপরই পাঁচিল ভেঙে বাসটি পড়ে যায় ভৈবর নদীতে। চোখের নিমেষে যাত্রী-সহ বাসটি নদী গর্ভে পুরোপুরি তলিয়ে যায়।

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close