Home » এক্সক্লুসিভ » ‘ম্যাডাম খায় জেলের ভাত, আপনারা ফাইভ স্টারে’

‘ম্যাডাম খায় জেলের ভাত, আপনারা ফাইভ স্টারে’

নিকটাত্মীয়ের আমন্ত্রণে একটি পাঁচ তারকা হোটেলে নৈশভোজে গিয়েছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন। নৈশভোজ শেষ করে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছেন। এসময়ই দুজন তরুণ তাঁর দুপাশে অবস্থান নিলো। ড. খন্দকার মোশারফ মনে করলেন, গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন বোধহয় তাঁকে ধরেছে। তিনি তার আত্মীয়’র কাছে বিদায় নেওয়ার জন্য তাকালেন। এসময় দুই তরুণের একজন বললেন ‘স্যার আমি যুবদলের। আপনি না কইছিলেন, ম্যাডাম জেলে গেলে আপনারাও স্বেচ্ছা কারাবরণ করবেন। এইডা তাহলে কারাগার? ম্যাডাম খায় জেলের ভাত আর আপনারা ফাইভ স্টারে। আপনারে আমরাই গুম করুম।’ কথা গুলো বলেই তারা উধাও হয়ে গেলেন। ড. খন্দকার মোশারফও আতঙ্কিত হয়ে দ্রুত হোটেল ত্যাগ করলেন।

বাংলা ইনসাইডার

প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপির মানববন্ধনে জনতার ঢল
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে জনতার ঢল নেমেছে।

সোমবার সকাল ১১ টা থেকে মানববন্ধন শুরুর কথা থাকলেও সকাল ১০ টার মধ্যেই জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনের রাস্তা লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়।

মানববন্ধনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির সিনিয়র নেতারা ও ২০ দলের নেতারা উপস্থিত হয়েছেন।

শীর্ষ নিউজ

বর্তমান সরকার আমলেই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৩০ মামলা

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আরো ৩৪টি মামলা রয়েছে। যার মধ্যে বর্তমান সরকারের আমলেই হয়েছে ৩০টি মামলা। বাকি ৪টি সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলের। দুর্নীতি, যানবাহনে আগুন দিয়ে মানুষ হত্যা, সহিংসতা, নাশকতা ও রাষ্ট্রদ্রোহ এবং মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে এসব মামলা হয়।

এরমধ্যে ১৯টি বিচারাধীন, ১২টি তদন্তাধীন আর ৩টি স্থগিত রয়েছে। ১৯টি বিচারাধীন মালমার মধ্যে গত ৪ জানুয়ারি ১৪টি মামলা বিচারের জন্য ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ জজ এজলাসে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন বিষয়ে শুনানি হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি।

ওই বিশেষ এজলাসে আগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার বিচার শেষে ৮ ফেব্রুয়ারি রায় ঘোষণা করেন আদালত। সেখানে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার বিচার অনেকটা শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এ মামলায় যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি পরবর্তী দিন ধার্য রয়েছে।

আদালতের নথিপত্র পর্যালোচনায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে এখন যে ৩৪টি মামলা রয়েছে, তার মধ্যে দুর্নীতির অভিযোগে আছে ৪টি। সেগুলো হলো জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট, নাইকো, গ্যাটকো ও বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতির মামলা। ৪টি মামলায়ই সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে (এক-এগারোর সময়‍) করা।

অন্য ৩০টি মামলা ২০১৪ সালের পর বিভিন্ন সময়ে হয়েছে। মূলত রাষ্ট্রদ্রোহ, হত্যা, ইতিহাস বিকৃতি, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি, ভুয়া জন্মদিন পালনের অভিযোগে এসব মামলা হয়। পুলিশ, সরকারি দলের নেতা-কর্মী ও আইনজীবীরা এসব মামলা করেছেন। এর মধ্যে ২৫টি মামলা হয়েছে ঢাকায়। কুমিল্লায় তিনটি এবং পঞ্চগড় ও নড়াইলে একটি করে মামলা রয়েছে।

নাশকতা ও বাসে আগুন দিয়ে মানুষ হত্যার অভিযোগে কুমিল্লার আদালতে থাকা দুটি মামলার মধ্যে একটি উচ্চ আদালতের নির্দেশে স্থগিত আছে। অন্যটিতে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা আছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মানহানির অভিযোগে করা একটি মামলা বর্তমানে স্থগিত।

monitorbd

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close