Home » খেলা » যে বিষয় নিয়ে খুব চিন্তিত মাশরাফিরা

যে বিষয় নিয়ে খুব চিন্তিত মাশরাফিরা

বিপিএল এলিমিনেটর পর্বে শুক্রবার দুপুর ২টায় খেলায় মুখোমুখি রংপুর ও খুলনা। এবারে বিপিএলে বেশ ভলোই খেলছে খুলনা টাইটান্স। সবার আগে শীর্ষ চার নিশ্চিত করে তারা। কিন্তু শেষ দিকে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও রংপুর রাইডার্সের কাছে টানা দুটি ম্যাচ হেরে শেষ পর্যন্ত তৃতীয় স্থান নিয়েই সন্তুষ্ট হতে হয় খুলনা টাইটান্সকে।

ফলে এলিমিনেটর রাউন্ডই খেলতে হচ্ছে দলটিকে। আর এর ফলে হারলেই বাদ পরবে দলটি, ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন ভেঙে যাবে তাদের। কোয়ালিফায়ারে খেলার লক্ষ্যে মিরপুর স্টেডিয়ামে শুক্রবার খুলনা টাইটান্স ও মাশরাফি বিন মুর্তজার রংপুর রাইডার্স মোকাবিলা করবে।

এবারের সবচেয়ে বড় আলোচনার বিষয় মিরপুরে উইকেট। মিরপুরে স্লো উইকেটে কারণে ব্যাটসম্যানরা বেশ সংগ্রাম করতে হয়েছে রানের জন্য। ফলে কোন দলের রান ১৫০ করতে অনেক কষ্ট সাধ্য হচ্ছে সাবারই।

আর এতেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশি-বিদেশিসহ অনেক তারকাই। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক তামিম ইকবাল তো বলেই দিলেন এই উইকেটক একটি ‘জঘন্য’ উইকেট। মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেছেন, গ্রহণযোগ্য নয়। ব্রেন্ডন ম্যাককালাম বলেছেন, বাজে উইকেট।

তবে এতো সমালোচনার পরও ঢাকা ডায়নামাইটসের কোচ ও বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন এই উইকেটে খারাপ কিছুই দেখছেন না। উল্টো তিনি ব্যাটসম্যানদের দায়ী করলেন। তিনি ব্যাটসম্যানদেরই কাঠগড়ায় তুললেন রীতিমতো ধুয়ে দিলেন। এছাড়াও আম্পায়ারিংই ভালো হচ্ছে বলে দাবী করলেন এ বোর্ড পরিচালক। কেননা আম্পায়ারিংই বেশ সমালোচনা করেছেন অনেকেই।

তবে দুই দলের কাঠগড়ায় উইকেট। এমন অসমান বাউন্সের উইকেটে ব্যাটসম্যানদের রান করাই কঠিন। খুলনার বোলিং কোচ আলফানসো থমাসও বললেন একই কথা, ‘এই উইকেটে ব্যাটিং করা সত্যিই ব্যাটসম্যানদের জন্য চ্যালেঞ্জিং।

কারণ মিরপুরের উইকেট স্লো এবং এখানে বল হুটহাট ওঠানামা করে। ’ তবে তারপরও এ উইকেটে মানিয়ে নিয়েই ভালো কিছু করতে চায় দলটি, ‘ব্যাটসম্যাদের মানিয়েই নিয়েই খেলতে হবে। আমাদের জন্য কাল কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে।

তারপরও দলের মধ্যে ভারসাম্য আছে। দলটি তরুণদের নিয়ে গঠিত। এখানে সবাই কমবেশি পারফর্ম করার চেষ্টা করছে। উইকেট বিবেচনা করেই আমাদের সেরা একাদশ তৈরি করতে হবে। ’

উইকেট নিয়ে দুশ্চিন্তাটা বেশি রংপুরের জন্যই। কারণ দলটি বেশি নির্ভর বিদেশি ব্যাটসম্যানদের উপর। ম্যাককালাম-গেইলরা এমন উইকেটে বেশ সংগ্রাম করছেন। আগের দিন তো উইকেটকে বাজেই বলেছেন ম্যাককালাম, ‘আমার মনে হয় এটা খুব বাজে উইকেট।

আমি অন্যরকম উইকেটে খেলতে অভ্যস্ত। এখানে তো আমি টার্ন আর বাউন্সের ব্যাপারে নিশ্চিতও হতে পারছি না। বল কখনো কখনো ওপর দিয়ে চলে যাচ্ছে। কখনো নিচে। একজন স্ট্রোকমেকার হিসেবে এখানে খেলা অনেক কঠিন। আরেকটু ভালো উইকেট পেলে ভালো হতো। ’ মাশরাফি তো আগেই বলেছেন, এমন উইকেটে ক্রিকেট খেলা যায় না।

গ্রুপপর্বে দুইবার দেখা হয়েছিল দল দুটির মধ্যে। তাতে একটি করে জয় দুই দলেরই। প্রথম ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর হাফ সেঞ্চুরিতে ভর করে ১৫৮ রান করেও বোলারদের নৈপুণ্যে ৯ রানের রোমাঞ্চকর জয় পেয়েছিল খুলনা। ফিরতি ম্যাচে দারুণ প্রতিশোধ নিয়েছিল রংপুর।

ম্যাচের চিত্রও ছিলো প্রায় একই রকম। সে ম্যাচে মিঠুনের হাফসেঞ্চুরিতে ১৪৭ রানের সাদামাটা স্কোর করে বোলারদের নৈপুণ্যে ১৯ রানের জয় পায় রংপুর। তাই আপাত দৃষ্টিতে এলিমিনেটরে রাউন্ডে সম্ভাবনা দুই দলেরই সমান। রোমাঞ্চকর একটি ম্যাচই আশা করছে দুই দল, সেই সাথে ক্রিকেট ভক্তরাও।

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close