ব্রেকিং:
Home » বিনোদন » সংগীত শিল্পী মেহজাবিন,পরিচালক হলেন অপূর্ব

সংগীত শিল্পী মেহজাবিন,পরিচালক হলেন অপূর্ব

একজন বিখ্যাত সংগীত শিল্পী হওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবিন। একটু সময় পেলেই তিনি সংগীত চর্চা করেন। এছাড়া এতে তার মায়ের যতেষ্ট অবদান আছে। দিনরাত পরিশ্রম করছেন নিজের স্বপ্ন পূরণে। তবে বাস্তবে নয়, বি ইউ শুভর নির্দেশিত বিশেষ নাটক ‘টুকরো প্রেমের টান’ নামে একটি নাটকে দেখতে পাবেন এমন চিত্র।

এতে জিয়াউল ফারুক অপূর্বকে দেখা যাবে সংগীত পরিচালকের ভূমিকায়। এটি আগামী বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে মুক্তি পাচ্ছে। প্রচারিত হবে ১৪ ফেব্রুয়ারি রাত নয়টায় এটিএন বাংলা’র পর্দায়। এবার নাটকের কিছু কাহিনী নিয়ে সামান্য আলোচনা করা যাক।


মৌমিতা (মেহজাবিন) একটু সময় পেলেই বন্ধু রাহাতকে গান শোনায়। কিন্তু মৌমিতা বিখ্যাত সংগীতশিল্পী হোক এটা কিছুতেই মেনে নিতে পারেন তার বন্ধু। কারণ রাহাত মৌমিতাকে ভালোবাসে, সে ভাবে, মৌমিতা যদি সেলিব্রেটি হয়ে যায়, তবে সে তাকে ভুলে যেতে পারে।

কিন্তু একদিন হঠাৎ জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ইরফানের সঙ্গে পরিচয় হয় রাহাতের এবং তাকে ভিজিটিংও কার্ড দেয় ইরফান। কিন্তু একদিন রেস্টুরেন্টে খেতে গিয়ে জোর করে রাহাতের মানিব্যাগ নেয় মৌমিতা এবং সেখানে শিল্পী ইরফানের ভিজিটিং কার্ড খুঁজে পায়। এরপর ইরফানের সাথে পরিচয় করিয়ে দেবার জন্য রাহাতকে অনুরোধ করেন মৌমিতা।


একপর্যায়ে একদিন বাধ্য হয়ে মৌমিতাকে নিয়ে সে ইরফানের সাথে পরিচয় করে দেন। ইরফান মৌমিতার গান শুনে মুগ্ধ হয় এবং এরপর থেকে প্রতিনিয়ত ইরফানের স্টুডিওতে সময় দিতে থাকেন মৌমিতা। আস্তে আস্তে ইরফান-মৌমিতার মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সর্ম্পক গড়ে উঠে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নাটকের কাহিনী কোন দিকে মোড় নেয় তা জানার জন্য আপনাকে দেখতে হবে নাটকটি। নাটকে অপূর্ব-মেহজাবিন ছাড়াও আরো অভিনয় করেছেন অরুণা বিশ্বাস, এস এন জনিসহ আরো অনেকে।

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close