ব্রেকিং:
Home » জাতীয় » সংবাদপাঠিকাকে ‍তুলে নেয়ার সময় জনতার রোষানলে ডিআইজি মিজান

সংবাদপাঠিকাকে ‍তুলে নেয়ার সময় জনতার রোষানলে ডিআইজি মিজান

প্রেমের প্রস্তাবে ব্যর্থ হয়ে প্রেমিকাকে তুলে আনতে যেয়ে জনতার রোষানলে পড়েছেন ডিআইজি মিজানুর রহমানের (ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার)। বর পেয়ে পুলিশ এসে তাকে জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে। ভুক্তভোগী নারী একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সংবাদ পাঠিকা।

নিজের পিস্তল উঁচিয়ে আত্মহত্যার ভঙ্গিতে ডিআইজি মিজানুর রহমান

সম্প্রতি রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর যুগান্তরের।


পত্রিকাটি দাবি করছে এ ঘটনার ভিডিও ফুটেজ তাদের হাতে রয়েছে।

ঘটনার অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। বিষয়টি নিয়ে পুলিশের আইজির সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। আইজিপির নেতৃত্বে একটি কমিটি করা হবে। তদন্তে দোষী প্রমাণিত হলে অবশ্যই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রায় ৭ মিনিটের ভিডিও ফুটেজে প্রায় অর্ধশত সাধারণ মানুষের উপস্থিতি দেখা যায়। এ সময় একজনকে বলতে শোনা যায়, ‘ডিআইজি মিজানকে জনগণ যাইতে দেয় নাই। পুলিশ এসে তাকে সেভ করে এবং ওই পুলিশ কর্মকর্তা গাড়ি নিয়ে সরে যান। পুলিশ না আসলে আমরা তাকে আটকাতে পারতাম।’


ফুটেজে আরও দেখা যায়, ওই সংবাদপাঠিকা বেশ কয়েকজন পুলিশকে উদ্দেশ করে বলছেন, ‘এই ওসি সাহেব আপনি যেতে পারবেন না। আপনি কেন গাড়িটিকে যেতে দিলেন? এ সময় সিভিল ড্রেসে থাকা একজন পুলিশ সদস্যকে বলতে শোনা যায় আমরা তো কোনো গাড়ি পাইনি। তখন ওই সংবাদ পাঠিকা বলেন, ‘আপনারা আসার পরইতো ডিআইজি মিজানুর রহমান এখান থেকে পালাতে সক্ষম হয়।’

ভুক্তভোগী সংবাদপাঠিকা জানান ডিআইজি মিজানুর রহমান আমাকে দেড় বছর ধরে ডিস্টার্ভ করছেন। আমার বাসা, অফিস সব জায়গায় সাদা পোশাকে পুলিশ ডিউটি রেখে আমাকে অনুসরণ করা হয়। তার কারণে আমার সংসার তছনছ হয়ে যাচ্ছে। বাসায় গিয়ে আমার স্বামীকে গুলি করার হুমকি দেন।

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close