Home » রাজনীতি » সোহাগ-জাকিরের সামনেই বিবাদে জড়ালো ছাত্রলীগ নেতারা

সোহাগ-জাকিরের সামনেই বিবাদে জড়ালো ছাত্রলীগ নেতারা

২৯তম জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভায় নেতাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডার ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের মোজাফ্ফর আহমদ চোধুরী অডিটরিয়ামে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা আড়াইটার দিকে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিলম্বের কারণে তা শুরু হয় বিকেল সাড়ে ৩টায়।


জানা যায়, নির্বাহী সভায় সবার মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হলেও গতকালের সভায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক অন্যদের কোনো কথাই বলতে দেয়নি ফলে তাদের দাবি-দাওয়াগুলো তারা জানাতে পারেনি। এ নিয়ে নেতাদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ দেখা দেয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক নেতা বলেন, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নিজেদের বক্তব্যের মাধ্যমে সভা শেষ করেন। তাঁরা আমাদের কোনোকিছু বলার সুযোগ দেননি। সভায় নতুন নেতাদের বয়স নির্ধারণ নিয়ে কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে জানতে চাইলে তাঁরা উত্তর দেননি।


সভায় প্রথম সারির আসনে বসাকে কেন্দ্র করেও বাগবিতণ্ডা হয় সংগঠনের সহসভাপতি ইমতিয়াজ বাপ্পি ও সহসাধারণ সম্পাদক এনামুল হক প্রিন্সের মধ্যে।

জানা যায়, প্রিন্স দুপুর আড়াইটার দিকে সভাস্থলে প্রবেশ করে প্রথম সারির চেয়ারে বসেন। কিন্তু তার ঠিক আধা ঘণ্টা পর সহসভাপতি ইমতিয়াজ বাপ্পি সেখানে প্রবেশ করেন এবং এনামুল হককে তাঁর আসন ছেড়ে দিতে বলেন। এ সময় তাঁদের মধ্যে বাগবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। পরে অন্য এক জ্যেষ্ঠ নেতার হস্তক্ষেপে বাগবিতণ্ডার সমাপ্তি ঘটে।

সভায় অংশগ্রহণকারী কয়েকজন নেতা জানান, সংগঠনের ২৯তম কাউন্সিলের তারিখ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, আগামী মার্চের ৩১ ও ১ এপ্রিল সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।


এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা কেন্দ্রীয় কমিটির সভা করি। সভা অতি সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে হয়েছিল। এখানে শুধু সম্মেলনের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এতে কোনো ধরনের বাগবিতণ্ডা হয়নি।

উৎসঃ পূর্বপশ্চিম

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close