খালেদা জিয়াকে জেলে দিয়ে আ’লীগ নিজেদের ফাঁদে পড়েছে: হাসান সরকার

0

গাজীপুর মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি মুক্তিযোদ্ধা হাসান উদ্দিন সরকার বলেছেন, তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলায় জেলে দিয়ে আওয়ামীলীগ নিজেরাই নিজেদের পাতা ফাঁদে পড়েছে। বর্তমানে কারাপ্রকোষ্ঠে গুরুতর অসুস্থ্য বেগম জিয়া সেখানে মৃত্যুবরণ করলেও আওয়ামীলীগের জন্য বিপত্তি এবং তাকে জেল থেকে মুক্তি দিলেও আওয়ামীলীগের জন্য বিপত্তি।

এজন্য তারা বেগম জিয়াকে কথিত অপরাধ স্বীকারের মূচলেকায় মুক্তির প্রস্তাব দিয়ে নিজেরা নিরাপদ প্রস্থানের পথ খুঁজছে। আওয়ামীলীগের এমন হীনরাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের ফাঁদে বিএনপি আর কখনোই পা দেবে না বলে তিনি মন্তব্য করেন। শুক্রবার বিকালে মহান ভাষা দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে গাজীপুর মহানগর বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

শহরের রাজবাড়ি রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে মহানগর বিএনপির সহসভাপতি আফজাল হোসেন কায়সারের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালামের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ডা. মাজহারুল আলম, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. সোহরাব উদ্দিন, সহসভাপতি ড. সহিদউজ্জামান, আনোয়ারুল ইসলাম, মাহবুবুল আলম শুক্কুর,

বসির আহমেদ বাচ্চু, রাশেদুল ইসলাম কিরণ, হুমায়ুন কবির রাজু, সামসুদ্দোহা সরকার তাপস, ফারুক হোসেন খান, সাইফুল ইসলাম, মোতালিব হোসেন, রবিউল ইসলাম রবি, নূর-ই-মোস্তফা খান, আজিজুল হক রাজু মাস্টার, লিটন হোসেন, মোতাহার হোসেন তালুকদার, মেহেদী মোশারফ, জিল্লুর রহমান মাসুম, নাজমুল খন্দকার সুমন, শরীফুল ইসলাম প্রতীক, তাজুল ইসলাম তাজু, হাজী স্বপন প্রমুখ।

হাসান সরকার আরো বলেন, ভাষা দিবস আমাদের বাঙ্গালী জাতীয়তাবাদের চেতনার প্রতিকৃতি, আমাদের দেশীয় সাংস্কৃতিক চেতনার প্রতিকৃতি। কিন্তু সঠিক শিক্ষা দীক্ষার অভাবে নতুন প্রজন্ম আমাদের প্রকৃত চেতনাকে ভুলে যাচ্ছে। যার ফলে আজকের এই দিবসও বিজাতীয় সংস্কৃতিতে আচ্ছন্ন নিমজ্জিত হয়ে যাচ্ছে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ডা. মাজহারুল আলম বলেন, ভাষা আন্দোলনের কথা বলতে হলে জ্ঞান তাপস ড. মোহাম্মদ শহীদুল্লাহর নাম শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করতে হবে। ভাষা আন্দোলন স্মরণ করতে হলে অধ্যাপক গোলাম আজম ও মাওলানা আকরাম খাদের নাম উচ্চারণ করতে হবে। আওয়ামীলীগ এসব নাম না বললেও আমাদেরকে শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতার সাথে এসব মনীষীর নাম উচ্চারণ করতে হবে।

তিনি বলেন, একুশের চেতনা মানে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের চেতনা। এই চেতনা মানেই বেগম জিয়ার মুক্তির চেনতা। আওয়ামীলীগ থেকে গুনগত পরিবর্তন আনার জন্যই সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ‘বিএনপি’ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.