রংপুরে বিভাগীয় কমিশনারসহ ৬৮ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

0

রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কে এম তারিকুল ইসলামসহ রংপুর বিভাগের ৬ জেলায় ৬৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় হোম কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে বিদেশফেরত রয়েছেন ২৩ জন। তবে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়নি।

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক আমিন আহমেদ খান জানিয়েছেন, মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত রংপুর বিভাগের ৬ জেলার ৬৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে। এরমধ্যে রংপুরে ৫ জন, নীলফামারীতে ১৬ জন, লালমনিরহাটে ৩ জন, কুড়িগ্রামে ২১ জন, দিনাজপুরে ৩ জন এবং গাইবান্ধায় ১৯ জন রয়েছেন।

গত ২৪ ঘন্টায় রংপুরে ১ জন, নীলফামারীতে ৭ জন, কুড়িগ্রামে ১০ জন এবং গাইবান্ধায় ৫ জনকে কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে। এদিকে রংপুরে ১ জন এবং দিনাজপুরে ২ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বিদেশফেরতের মধ্যে করোনার লক্ষণ দেখা দেয়ায় আইইডিসিআরএ পরীক্ষা করার পর তাদের শরীরে কোভিড-১৯ পাওয়া যায়নি।

তিনি আরো জানান, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কে এম তারিকুল ইসলাম রয়েছেন। তিনি আছেন রংপুর সার্কিট হাউজে। তিনি গত ১৬ মার্চ আমেরিকা থেকে ফিরেছেন। স্বাস্থ্য বিভাগের এই কর্মকর্তা আরও জানান, যাদেরকে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে তারা সবাই বিদেশফেরত।

বিভাগীয় কমিশনারের মতো বিদেশফেরত সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে যাওয়ার অনুরোধ জানিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের এই পরিচালক জানান, যারা বিদেশ থেকে আসছেন, তাদেরকে অবশ্যই ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এর মাধ্যমে নিজেকে, পরিবারকে,পাড়া-প্রতিবেশীকে, সমাজকে ও রাষ্ট্রকে বাঁচানো সম্ভব।

তিনি বলেন, রংপুর বিভাগে এ পর্যন্ত যারা কোরেটাইনে আছেন তাদের মধ্যে দিনাজপুরের ২ জনের মধ্যে করোনার লক্ষণ দেখা যায়। সেটি আইইডিসিআরে পরীক্ষার পরে তাদের মধ্যে কোনো কোভিড-১৯ পাওয়া যায়নি।

এছাড়া আর যারা কোয়ারেন্টাইনে আছেন তাদের মধ্যে কোনো লক্ষণ এখন পর্যন্ত দেখা যায়নি। তিনি জনগণকে আতঙ্কিত না হয়ে বারবার হাত ধোয়া এবং জনসমাগম এড়িয়ে চলার আহ্বান জানান।

Leave A Reply

Your email address will not be published.