যে কারণে ড. আসিফ নজরুল বললেন জানি না, আসলে তা হচ্ছে কিনা

0

করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে মৃত্যুর আতঙ্ক ছড়িয়ে দিয়েছে। গোটা বিশ্ব হিমশিম খাচ্ছে এই ভাইরাসটি প্রতিরোধে। হু হু করে বাড়ছে আক্রান্ত আর মৃত্যুর সংখ্যা। তবে বাংলাদেশে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস যেন ছড়িয়ে না পড়ে সে জন্য ব্যাপক ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার।সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান,

এনজিওসহ অনেক সংস্থা করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। একই সঙ্গে দেশের বিভিন্ন সচেতন নাগরিকও করোনার বিষয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন। এ ছাড়া সারা দেশে যে যেভাবে পারছেন দেশ ও মানুষের জন্য দোয়া করছেন।

দেশবাসীর জন্য দোয়া চেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল রোববার দুপুর ২টা ৫৯ মিনিটে তার নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘গরম আমার খুব অপছন্দের। আর এখন মনে হয় আরও গরম পড়ুক, পুড়ে ছাই হোক করোনা।

জানি না, আসলে তা হচ্ছে কিনা। তবু আল্লাহর কাছে দোয়া করি তাই যেন হয়। আমার দেশে আর কোনো মানুষ যেন মারা না যায় করোনায়। আমার চরম শত্রুও না।’ চীনের উহান প্রদেশ থেকে উৎপত্তি প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে বাংলাদেশে আক্রান্ত রোববার পর্যন্ত ৪৮ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৫ জন।

প্রসঙ্গত, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে তিনজনকে শনাক্ত করা হয়। তখন বলা হয়, এই তিনজনের মধ্যে দু’জন ইতালি থেকে সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন। তাদের কাছ থেকে একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত দেশে পাঁচ ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। গত ১৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.