Take a fresh look at your lifestyle.

খালেদা জিয়ার জন্য জেলের মধ্যে যা করলেন শিমুল বিশ্বাস

0

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ডান হাত হিসেবেই পরিচিত ছিলেন তিনি। বিএনপির যত বড় নেতাই হন না কেন তাঁর সঙ্গে কথা না বলে কেউ দেখা পেতেন না বেগম জিয়ার। বিএনপি চেয়ারপারসন এখন কারাগারে। সেই ডান হাতও কারাগারে। বেগম জিয়ার খবর মানুষ নিলেও, ডান হাতের খবর কেউ নেয় না।

বেগম জিয়ার মতো চার মাসের বেশি সময় ধরে কারান্তরীণ হলেও বিএনপি লোকজন যেন ভুলেই বসে আছে বিএনপি চেয়ারপারসনের ডান হাত বিশেষ সহকারী এবং রাজনীতিবিদ অ্যাডভোকেট শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাসের কথা।জিয়া এতিমখানা দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত। ওই দিনই তাঁকে নেওয়া হয় পুরোনো ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে। ৮ ফেব্রুয়ারি রাতেই গ্রেপ্তার হন শিমুল বিশ্বাস।

বেগম জিয়ার মতোই দীর্ঘ চার মাসের বেশি সময় ধরে কারাগারে আছেন শিমুল বিশ্বাস। এর মধ্যে তিন দফায় ১৯ দিন রিমান্ডে রাখা হয় তাঁকে। অসুস্থও হয়ে পড়েন তিনি। কিন্তু নিজ পরিবার ছাড়া কেউ রাখেনা শিমুল বিশ্বাসের খোঁজ। বিএনপির কোনো নেতা এখন পর্যন্ত শিমুল বিশ্বাসের খোঁজ নিয়েছেন এমন তথ্য নেই। এমনকি দলের বিভিন্ন নেতা বিভিন্ন সময়ে গ্রেপ্তার হলে তাদের ছাড়াতে উদ্যোগ নেওয়া হলেও শিমুল বিশ্বাসের জন্য কোনো আইনজীবী দেয়নি বিএনপি।

বরং একাধিক সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন সময়ে গ্রেপ্তার হওয়া বিএনপি নেতারা বিভিন্ন অভিযোগে শিমুল বিশ্বাসকেই দায়ী করে জবানবন্দি দিয়েছেন। এই কারণে একটি মামলায় গ্রেপ্তার হলেও এখন শিমুল বিশ্বাসের মামলা সংখ্যা ছয়। শিমুল বিশ্বাসকে মুক্ত করার জন্য কোনো উদ্যোগ বিএনপি নেতারা না নিলেও তাঁকে আরও গ্রেপ্তার রাখার জন্য যা যা করা দরকার সবই করছেন তারা।

বিএনপির ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে, শিমুল বিশ্বাস যখন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম জিয়ার বিশেষ সহকারী ছিলেন তখন অনেক বিএনপি নেতাই তাঁর উপর রুষ্ট ছিলেন। এরই বহি:প্রকাশ ঘটেছে বেগম জিয়া গ্রেপ্তার হওয়ার পর। আগের সেই রাগ ঝাড়তেই গ্রেপ্তার শিমুল বিশ্বাসকে বিভিন্ন মামলায় জড়িয়ে ফেলছেন বিএনপি নেতারা- এমনই মত সংশ্লিষ্টদের। তাঁদের মতে, এটাই বিএনপির রাজনীতির চরিত্র।

বাংলা ইনসাইডার

Leave A Reply

Your email address will not be published.