Home » ইসলাম (page 4)

ইসলাম

জেনে নিন আজরাঈল (আ) কে থাপ্পর মারার সেই কাহিনী

তখন তিনি আল্লাহ তাআলার নিকট আরজ করলেন, আপনি আমাকে এমন বান্দার নিকট প্রেরণ করেছেন যিনি মওত চান না পৃথিবীর মানুষ যখন ভুল পথে ধাবিত হয় তখন মহান আল্লাহ তায়ালা এই পথভ্রষ্ট মানুষদের সঠিক পথে ফিরিয়ে আনার জন্য যুগে যুগে পয়গম্বর পাঠিয়েছেন। আল্লাহ তায়ালার পাঠানো পয়কম্বরের মধ্যে এমন একজন নবী আছেন, যিনি সয়ং আজরাঈল (আ) কে চড় মেরেছিলেন। আপনি জানেন কি ...

বাকীটুকু পড়ুন »

কুরআনে আল্লাহ তাআলার আকর্ষণীয় গুণের বর্ণনা

সুরা বাকারার ২৫৪নং আয়াতে আল্লাহ তাআলা কেয়ামতের দিনের কথা উল্লেখ করেছেন। সেদিন কেউ কারো কোনো উপকারে আসবে না কোনো বন্ধুত্ব কাজে আসবে না মর্মে সতর্কবাণী ঘোষণা করা হয়েছে। শুধুমাত্র আল্লাহ তাআলার দয়া-মায়া ব্যতিত কোনো উপায়ও থাকবে না। আর এ আয়াতে আল্লাহ তাআলার গুণাবলী ও তাঁর অনন্ত অসীম ক্ষমতা ও হুকুমত সম্পর্কে সুস্পষ্ট ভাষায় তিনি ঘোষণা করেন- আয়াত পরিচিতি ও নাজিলের ...

বাকীটুকু পড়ুন »

ছোট্ট এই দোয়াটি পড়লে মন থেকে দূর হবে সব হিংসা বিদ্বেষ, আলহামদুলিল্লাহ !!

মানুষ আশরাফুল মাখলুকাত বা সৃষ্টির সেরা জীব। তবে এই সেরা সৃষ্টির মাঝেও কিছু খারাপ দিক রয়েছে। এর একটি হল হিংসা-বিদ্বেষ। মানুষ সভাবতই অন্যের সুখ-শন্তি ও ধন-সম্পদ দেখে ইর্ষান্বিত হয়। তাদের ক্ষতি কামনা করে এবং নিজে এর মালিক হবে চায়। ইসলামি শরীয়তে এটিকে অপরাধ হিসেবে গন্য করা হয়। তাই হিংসা ও বিদ্বেষ পোষণ করা নিষিদ্ধ। হিংসার অপকারিতার কথা উল্লেখ করে রাসুলুল্লাহ ...

বাকীটুকু পড়ুন »

চিন্তা দূর করতে যে দোয়া পড়বেন

চিন্তা মানুষের সব শান্তিকে মাটি করে দেয়। স্বাভাবিক জীবন-যাপনকে বাধাগ্রস্ত করে তোলো। মানুষ বিভিন্ন কারণে চিন্তাযুক্ত হয়ে পড়ে। তা হতে পারে দুনিয়ার পেরেশানি কিংবা শত্রুর দুশমনির কারণে। আবার আল্লাহর প্রিয়বান্দারা অন্যায় করে ফেললে সে পেরেশানিতেও দুঃশিন্তাগ্রন্ত হয়ে পড়ে। দুনিয়ার সব চিন্তা ও পেরেশানি থেকে মুক্ত থাকতে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিয়মিত একটি দোয়া পড়তেন। আর তাহলো- হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু ...

বাকীটুকু পড়ুন »

শয়তানকে সৃষ্টি করা হলো যে কারণে

এক আরবি কবি তাঁর কবিতার ছন্দে তুলে ধরেন- ‘যদি তাকওয়াবিহীন কোনো ইলমের মর্যাদা থাকত তবে ইবলিস আল্লাহর সৃষ্টিকূলের সেরা বলে গণ্য হত’ আল্লাহ তাআলার সেরা ও প্রিয় সৃষ্টি মানুষ। এ মানুষের পরীক্ষা গ্রহণের জন্যই আল্লাহ তাআলা অভিশপ্ত শয়তানকে সৃষ্টি করেছেন। কে আল্লাহকে প্রকৃত পক্ষে ভালোবাসে; আর কে আল্লাহকে লোভ-লালসায় পড়ে ভুলে যায়; তা নির্বাচনের সেরা মাধ্যম হলো বিতাড়িত শয়তান ও ...

বাকীটুকু পড়ুন »

ক্বাল্‌ব বা আত্মার পরিচয়

মানুষ ক্বাল্‌ব (قلب) ও দেহের সমন্বয়ে সৃষ্টি। তবে ক্বাল্‌ব বা আত্মাই হচ্ছে আসল। দেহ হচ্ছে ক্বাল্‌ব-এর আবরণ মাত্র। এ কারণে দেহেরে হেফাজতের চেয়ে ক্বাল্‌ব-এর হেফাজতের গুরুত্ব অনেক বেশি। ক্বাল্‌ব-ই হচ্ছে মানুষের হেদায়াতের কেন্দ্র বিন্দু। আর পরিশুদ্ধ ক্বাল্‌ব ছাড়া সঠিক হেদায়াতও সম্ভব নয়। আল্লাহ তাআলা কুরআনে পাকে ইরশাদ করেন- ‘বিশ্বস্ত রূহ (জিবরিল) তা (কুরআন) নিয়ে অবতরণ করেছে। তোমার কলবে; যাতে তুমি ...

বাকীটুকু পড়ুন »

আল্লাহ যে ৪ কাজে বান্দাকে অভিশম্পাত করেন

ইসলাম শান্তি ও পূর্ণতার জীবন ব্যবস্থা। হাদিসে পাকে ইসলামের অনুসারী হওয়া সত্ত্বেও আল্লাহ তাআলা ৪ শ্রেণীর লোকের ওপর অভিশাপ করে থাকেন। ঈমান লাভের পরও আল্লাহ অভিশাপ বান্দার জন্য মারাত্মক বিষয়। হাদিসে পাকে মানুষদেরকে সে সব কাজ থেকে বিরত থাকতে গুরুত্বসহকারে তা উল্লেখ করা হয়েছে। হজরত আবু তোফায়েল হজরত আলি রাদিয়াল্লাহু আনহু’র কাছে জানতে চাইলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁকে ...

বাকীটুকু পড়ুন »

মহানবী (সাঃ) এর হুঁসিয়ারি, যে দশটি কাজ করলে দশটি বিপদ অবধারিত !

যখন আমার উম্মত ১০টা কাজ করবে, তখন তাদের উপর বিপদ নেমে আসবে। কিয়ামত পর্যন্ত তার উম্মতরা যাতে ন্যায়ের পথে থেকে চলতে পারে সেজন্য মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) দিক নির্দেশনা দিয়ে গেছেন। এ সম্পর্কিত একটি হাদিস এখানে উল্লেখ করা হলো। হযরত আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিতঃ- রাসূল (সা.) বলেছেন, ‘যখন আমার উম্মত ১০টা কাজ করবে, তখন তাদের উপর বিপদ নেমে আসবে। ...

বাকীটুকু পড়ুন »

জুমার নামাজ না পড়লে যে ভয়াবহ পরিণতির বিষয়ে সতর্ক করেছেন রাসূল (সা:)

মুসলমানদের কাছে সপ্তাহের সবচেয়ে গুরুত্ব ও তাৎপর্যপূর্ণ দিন হল শুক্রবার অর্থাৎ জুমার দিন। ফজিলতের কারণে এদিনটি গরীবের ঈদের দিন বলা হয়ে থাকে। সপ্তাহের সবচেয়ে গুরুত্ব ও তাৎপর্যপূর্ণ দিন হল শুক্রবার অর্থাৎ জুমার দিন। এ দিনের ফজিলত অনেক। তাই কোনো মুসলমানের উচিত নয় যে, জুমার নামাজ থেকে বিরত থাকা। জুমার দিনকে সপ্তাহের শ্রেষ্ঠ দিন ঘোষণা দিয়েছেন বিশ্বনবি। জুমার নামাজ না পড়ার ...

বাকীটুকু পড়ুন »

স্বপ্নে রোজা রাখা ও ঈদ পালন করতে দেখলে কী হয়?

ওস্তাদ আবু সাআদ (রহ.) বলেন যদি কেউ স্বপ্নে রমজানের রোজা পালন করতে দেখে- এর ব্যাখ্যা নিয়ে বিভিন্ন স্ববিশারদদের মাঝে কিছুটা মতপার্থক্য লক্ষ করা যায়। কিছু কিছু স্বপ্নবিশারদদের মতামত হলো- যদি কেউ স্বপ্নে রমজান মাসের রোজা পালন করতে দেখে তবে তা খাদ্য ঘাটতি ও চড়া মূল্যের প্রতি ইঙ্গিত বহন করে। আবার কারো মতামত হলো- রমজান মাসের রোজা পালন স্বপ্নে দেখো মানে ...

বাকীটুকু পড়ুন »
Open

Close