ব্রেকিং:
Home » রাজনীতি » রাষ্ট্রপতি যে নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন আ.লীগ তা মেনে নেবে : প্রধানমন্ত্রী

রাষ্ট্রপতি যে নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন আ.লীগ তা মেনে নেবে : প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : সকলের সঙ্গে আলোচনা করে নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ এবং আওয়ামী লীগ তা মেনে নেবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনের সমাপনী বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন,  নির্বাচনে না গিয়ে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করার জন্য জনগণের কাছে খালেদা জিয়াকে ক্ষমা চাইতে হবে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের অধিবেশন সমাপ্তি সম্পর্কিত ঘোষণা পাঠের মাধ্যমে অধিবেশন আজ শেষ করা হয়। এর আগে আজ সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমাপনী ভাষণ দেন। এছাড়া বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ সমাপনী বক্তব্য দেন।

স্পিকার এই অধিবেশনে সরকার ও বিরোধীদল নির্বিশেষে সবাইকে কার্যকর ভূমিকা রাখার জন্য ধন্যবাদ জানান। স্পিকার সংসদ অধিবেশন পরিচালনায় সহযোগিতা করায় সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সংসদ উপনেতা, মন্ত্রী সভার সদস্যবৃন্দ, চিফ হুইপসহ হুইপগণ, বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ, সকল সংসদ সদস্য, ডেপুটি স্পিকার ও সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, মিডিয়া কর্মীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বুদ্ধিজীবীসহ ৩০ লাখ শহীদ ও সর্বোচ্চ আত্মত্যাগকারী মা-বোনদের প্রতিও শ্রদ্ধা জানান। সাথে সাথে দেশবাসীর প্রতি বিজয়ের শুভেচ্ছা জানান।

এদিকে দশম জাতীয় সংসদের ১৩তম অধিবেশন ৪ ডিসেম্বর শুরু হয়। মোট ৫টি কার্যদিবসের এ অধিবেশনে ৯টি সরকারি বিলের মধ্যে ৫টি বিল পাস হয়। আইন প্রণয়ন সম্পর্কিত কাজ সম্পাদনের পাশাপাশি কার্যপ্রণালী বিধির ৭১ বিধিতে ১৩৯টি নোটিশ পাওয়া যায়। নোটিশগুলো থেকে ৬টি গৃহীত নোটিশের মধ্যে ১টি আলোচিত হয়। এছাড়া ৭১(ক) বিধিতে দুই মিনিটের আলোচিত নোটিশের সংখ্যা ছিল ৩০টি।

এছাড়া এ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর উত্তর দানের জন্য সর্বমোট ৯৪টি প্রশ্ন পাওয়া যায়। তার মধ্যে তিনি ১৮টি প্রশ্নের উত্তর দেন। মন্ত্রীদের জন্য আনা ১ হাজার ৫২৭টি প্রশ্নের মধ্যে ৬৯২টি প্রশ্নের জবাব দেন। সমাপনী ভাষণের পর স্পিকার দশম জাতীয় সংসদের ১৩তম অধিবেশন সমাপ্তি সংক্রান্ত রাষ্ট্রপতির আদেশ পাঠ করেন।

উল্লেখ্য, আগামী ফেব্রয়ারিতে নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে। হিসাব অনুযায়ী নতুন নির্বাচন কমিশনের অধীনেই হবে পরবর্তী জাতীয় সংসদ নির্বাচন। ঐক্যমতের ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনে সরকারে প্রতি আহ্বান জানিয়ে ৭ দফা প্রস্তাব  দিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এরই মধ্যে গত মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনে খালেদা জিয়ার প্রস্তাব রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে পৌঁছে দিয়েছে বিএনপি।

 

Facebook Comments
(Visited 1 times, 1 visits today)

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close