Home » এক্সক্লুসিভ » ভারতের রাস্তায় দেখা গেল ৭ মুখওয়ালা অলৌকিক সাপ! সোশ্যাল মিডিয়ার খবরে তোলপাড়

ভারতের রাস্তায় দেখা গেল ৭ মুখওয়ালা অলৌকিক সাপ! সোশ্যাল মিডিয়ার খবরে তোলপাড়

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক : সেদিন সেই হিস-হিস শব্দের দিকে দৃষ্টি ফেরাতেই যেন হাত-পা ঠাণ্ডা হয়ে গেল সকলের। কারণ তাঁরা দেখলেন, রাস্তার ধারে ফণা তোলা সাপ একটি রয়েছে ঠিকই, কিন্তু সেটি কোনও সাধারণ সাপ নয়। কারণ সেই সাপের মাথার সংখ্যা একটি নয়, বরং সাত-সাতটি।

কর্ণাটকের আরাবিথিটু এলাকার ঘটনা। ঘড়িতে সময় সকাল ৭টা-সাড়ে ৭টা। দু’পাশের ঘন জঙ্গল চিরে চলে গিয়েছে রাস্তা। সাধারণ মানুষ হেঁটে চলেছেন কাজে, মাঝে মাঝে ছুটে যাচ্ছে একটি দু’টি লরি কিংবা অন্য গাড়ি। হঠাৎই রাস্তার পাশ থেকে ভেসে এল হিস-হিস শব্দ। অরণ্য অধ্যুষিত এলাকা বলে এখানে সাপের দেখা মেলে মাঝেমধ্যেই। ফলে এ ধরনের শব্দ এই অঞ্চলের পথচারীদের কাছে কিছু নতুন নয়। তাঁরা ভেবেছিলেন, ঘাড় ঘুড়িয়ে রাস্তার পাশে তাকালে দেখতে পাবেন ফণা তুলে দাঁড়িয়ে রয়েছে কোনও কেউটে কি গোখরো, আর মুখ দিয়ে বার করছে ওই বিচিত্র শব্দ। কিছুক্ষণের সতর্কতা, তারপর সাপ মাথা নামিয়ে চলে যাবে নিজের পথে, আর তাঁরাও হাঁটা দেবেন নিজেদের গন্তব্যের দিকে। কিন্তু সেদিন সেই হিস-হিস শব্দের দিকে দৃষ্টি ফেরাতেই যেন হাত-পা ঠাণ্ডা হয়ে গেল সকলের। কারণ তাঁরা দেখলেন, রাস্তার ধারে ফণা তোলা সাপ একটি রয়েছে ঠিকই, কিন্তু সেটি কোনও সাধারণ সাপ নয়। কারণ


সেই সাপের মাথার সংখ্যা একটি নয়, বরং সাত-সাতটি।

সাপটিকে দেখে ভয়ে-বিস্ময়ে শিহরিত হয়ে ওঠেন পথচারীরা। তবে কিছু উৎসাহী তড়িঘড়ি মোবাইল বার করে তুলে ফেলেন সাপটির ছবি। সাত মুখওয়ালা সাপের ছবি পোস্ট করে দেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। কয়েক ঘন্টার মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় সেই ছবি। সারা দেশ জুড়ে শুরু হয় জল্পনা। কেউ কেউ এমনও বলতে থাকেন, এ হল হিন্দু পুরাণে কথিত শেষনাগ। বলা হয়, ভগবান বিষ্ণু এই শেষনাগের পিঠে শুয়েই বিশ্রাম নেন। সাধারণত কল্পনা করা হয়, এই শেষনাগের মাথার সংখ্যা পাঁচটি কিংবা সাতটি। এই সাত মুখওয়ালা সাপ সেই শেষনাগেরই আধুনিক সংস্করণ বলে দাবি করতে থাকেন অনেকে। এমনও বলা হয় যে, এই সাপ হল বিষ্ণুর নতুন অবতারের পূর্বাভাস। কারণ বিষ্ণু ধরাধামে অবতীর্ণ হওয়ার আগে নাকি শেষনাগ দেখা দেয় পৃথিবীতে। অনেকে তাই সাপটির ছবির প্রিন্ট আউট নিয়ে দেওয়ালে ঝুলিয়ে পূজার্চনাও শুরু করেন। বিষ্ণুর নতুন অবতারের জন্য শুরু হয় অপেক্ষা।

কিন্তু আধ্যাত্মিক ব্যাখ্যা সরিয়ে রেখে বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিকোণ থেকে বিষয়টির ব্যাখ্যা খুঁজতে বসলে খানিক ধন্ধ জাগে। কারণ প্রশ্ন ওঠে, সত্যিই কি কোনও সাপের সাতটি মাথা হতে পারে! সর্পবিশেষজ্ঞরা বলছেন, দুই মাথাওয়ালা সাপ পৃথিবীর অনেক জায়গাতেই দেখা গিয়েছে। শ্রীলঙ্কার জুলজিক্যাল গার্ডেন অফ কলম্বোতেই রয়েছে এমন দুই মাথাওয়ালা একটি পাইথন। কিন্তু সাত মাথাওয়ালা সাপের কোনও সংবাদ আজ পর্যন্ত মেলেনি। তাত্ত্বিকভাবেও কোনও সাপের মাথার সংখ্যা সাতটি হতেও পারে না। কিন্তু তাহলে এই ছবির এই বিচিত্র সাপটির ব্যাখ্যা কী?

একটু খোঁজখবর করতেই ধরা পড়ে সত্যিটা। জানা যায়, গোটা ব্যাপারটাই ফোটোশপের কারসাজি। ভারতেরই কোনও অঞ্চলে রাস্তার ধারে ফণা তুলে দাঁড়ানো একটি সাপের ছবি তুলেছিলেন কেউ। তারপরের ফোটোশপের সাহায্যে সেই সাপের মাথার সংখ্যা বাড়িয়ে দেওয়া হয়। ইন্টারনেট ঘাঁটলে দেখা যায়, কোনও কোনও ছবিতে সাপটির মাথার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন।

কেউ কেউ আবার উৎসাহের বশে সাপটির শরীরে বসিয়ে দিয়েছেন হাজার খানেক মাথা।

ছবিটি তৈরি হয়ে যাওয়ার পরে ওই আরাবিধিটু এলাকায় সাপটির দেখা মেলার গল্পটি বানিয়ে নেওয়া কোনও কঠিন কাজ নয়। ফলে আদপে সাত মাথাওয়ালা সাপের পুরো সংবাদটিই ভুয়ো। কথায় বলে, যা রটে, তার কিছু তো ঘটে। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার জগতে অনেক সময়ে দেখা যাচ্ছে, যা রটে, তার কিছুই আসলে ঘটে না। সাত মাথাওয়ালা সাপের সংবাদ তেমনই একটি রটনার দৃষ্টান্ত। -এবেলা।

 

Facebook Comments
(Visited 1 times, 1 visits today)

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close