Home » বিশেষ সংবাদ » ভোট দিলেন সাখাওয়াত, যাই ফল হোক মেনে নেবো

ভোট দিলেন সাখাওয়াত, যাই ফল হোক মেনে নেবো

 নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় ভোট শুরুর পরপরই নগরীর ১৩নং ওয়ার্ডের মাসদাইরের আদর্শ স্কুল ভোটকেন্দ্রে এসে ভোট দেন তিনি।

ঘড়ির কাটায় সকাল ৮টা বাজার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়েছে নারায়ণগঞ্জ সিটির করপোরেশনের ভোটগ্রহণ। একযোগে নগরীর ১৭৪ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলছে। বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা এ ভোটগ্রহণ হবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

এর আগে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন কেন্দ্রের বাইরে অবস্থান নেন। ভোট শুরুর পর তিনি নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

পরে বের হয়ে সাংবাদিকদের বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোটে জনতা যে রায় দেবে আমি সেটা মেনে নেবো। আমি চাই নির্বাচন অবাধ হোক। মানুষ এসে ভোট দিক। প্রশাসনও নিরপেক্ষ হোক যাতে, ভোটাররা নির্ভয়ে ভোট দিতে পারেন। এখন পর্যন্ত কোন খারাপ খবর আসেনি।

‘জনগণ ভোট দিতে পারলে আমি জয়ী হবো ইনশাআল্লাহ,’ যোগ করেন তিনি।

এ নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৭জন, কিন্তু আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে দুই প্রার্থীর প্রতীক নৌকা ও ধানের শীষ।

নৌকার আইভী না ধানের শীষের সাখাওয়াত তা নিয়ে চলছে জল্পনা ও বিশ্লেষণ। তবে নগরপিতা যিনিই হোন না কেন হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের কথাই বলছেন নগরবাসী।

নতুন মেয়র ও কাউন্সিলর নির্বাচনে ভোট দেবেন পৌনে পাঁচ লাখ ভোটার। মেয়র পদে সাতজন প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামী লীগের ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ‘নৌকা’ এবং বিএনপির অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান ‘ধানের শীষ’ প্রতীকে ভোটযুদ্ধে অংশ নিচ্ছেন।

এছাড়াও মেয়র পদের বাকি পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির মাহবুবুর রহমান ইসমাইল ‘কোদাল’, এলডিপির কামাল প্রধান ‘ছাতা’, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাসুম বিল্লাহ ‘হাতপাখা’, কল্যাণ পার্টির রাশেদ ফেরদৌস ‘হাতঘড়ি’ এবং ইসলামী ঐক্যজোটের মুফতি এজহারুল হক ‘মিনার’ প্রতীক নিয়ে এ ভোটে লড়ছেন।

২৭টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১৫৬ ও সংরক্ষিত ৯ ওয়ার্ডে ৩৮ নারী প্রার্থী রয়েছেন।

বিডি প্রতিদিন/বাংলানিউজ

Facebook Comments
(Visited 1 times, 1 visits today)

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close