ব্রেকিং:
Home » শীর্ষ সংবাদ » মেয়ের জঙ্গি আস্তানার তথ্য পুলিশকে জানায় মা, তারপর যেভাবে চলে অভিযান

মেয়ের জঙ্গি আস্তানার তথ্য পুলিশকে জানায় মা, তারপর যেভাবে চলে অভিযান

রাজধানীর দক্ষিণখানের আশকোনায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে যে বাড়িটিতে যে অভিযান চালানো হয়েছিল ১৬ ঘণ্টা পর তা সমাপ্তি ঘোষণা করেছে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।

এ সময় সেখানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি ও পুলিশ কমিশনারসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা ধরে কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের এই অভিযান চলে। অভিযানে রাজধানীর আজিমপুরে নিহত জঙ্গি নেতা তানভির কাদেরীর ছেলে আসিফ কাদেরীসহ এক নারী নিহত হয়েছেন।

নব্য জেএমবির ঐ বাড়িটির নাম ‘সূর্য ভিলা’।

সূর্যভিলা ভবনে জঙ্গিরা যে অবস্থান করছে, সেই তথ্য পুলিশকে দেন নিহত জঙ্গি প্রাক্তন মেজর জাহিদুল ইসলামের শাশুড়ি জহুরা আক্তার।

ঘটনাস্থল থেকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, জাহিদুল ইসলামের শাশুড়ির দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই এ বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। অভিযান চালানোর


পর পুলিশের পক্ষ থেকে তাদের আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। এরপর সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নিহত জাহিদুল ইসলামের স্ত্রী জেবুন্নাহার শিলা ও তার মেয়ে, পলাতক মুসার স্ত্রী তৃষ্ণা ও তার ছেলে বাসা থেকে বেরিয়ে আসে। ভেতরে এখনো তিন জঙ্গি অবস্থান করছে।

ওই বাড়ির মালিক জামালের মেয়ে জোনাকি জানান, তার বাবা কুয়েতপ্রবাসী। তারা ওই বাড়িতেই থাকতেন। পাঁচ মাস আগে ইমতিয়াজ নামের এক যুবক চাকরিজীবী পরিচয়ে তাদের বাসা ভাড়া নেয়। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়েই তাদের ভাড়া দেওয়া হয়।

তিনি আরো জানান, এত দিন সন্দেহজনক তেমন কিছু চোখে পড়েনি। তবে তাদের কাছে অনেক লোকজন যাওয়া-আসা করত। এ বিষয়ে ইমতিয়াজ তাদের জানান, যারা আসে তারা তার স্বজন।

জোনাকি আরো জানান, তিনতলা ভবনের নিচতলাতে তারা থাকতেন। ঘরে তেমন কোনো ফার্নিচার ছিল না।

উল্লেখ্য, গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে রাজধানীর মিরপুরে রূপনগরের ৩৩ নম্বর সড়কে ৩৪ নম্বর বাড়িতে পুলিশের অভিযানে জঙ্গি জাহিদুল ইসলাম নিহত হন। এরপর গোয়েন্দা পুলিশ জাহিদুল ইসলামের শ্বশুর মমিনুল হক ও শাশুড়ি জহুরা আক্তারকে কয়েকবার জিজ্ঞাসাবাদ করে।

 

Facebook Comments
(Visited 1 times, 1 visits today)

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close