Home » খেলা » তানভীর প্রসঙ্গে আঙ্গুল তুলে যা বললেন হাথুরুসিংহে

তানভীর প্রসঙ্গে আঙ্গুল তুলে যা বললেন হাথুরুসিংহে

স্পোর্টস ডেস্ক: ওয়ানডে সিরিজে কিউইদের বিপক্ষে হোয়াইট ওয়াশ হওয়ার পর টাইগারদের দল নির্বাচন নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বিশেষ করে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ওয়ানডেতে আনকোরা লেগ স্পিনার তানবীর হায়দারকে খেলানো নিয়েই প্রশ্ন উঠেছে সবচাইতে বেশি।

তবে তানবীরকে শুধু শুধু পরীক্ষা করার জন্য দলে নেয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন দলের হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। বুঝে শুনেই নেয়া তাঁকে জায়গা দেয়া হয়েছে দলে।

আগামী জুন মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আইসিসি চ্যাস্পিয়ন্স ট্রফি আর ২০১৯ সালে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে সাফল্য পাওয়ার জন্য দরকার একজন স্পেশালিষ্ট লেগস্পিনার। আর এই কারণেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দলে তানবীরকে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাথুরু।

মূলত এই দুই বড় টুর্নামেন্টের আগে একজন পাকাপোক্ত লেগ স্পিনার পাওয়ার আশাতেই তানবীরকে দলে রাখা হয়েছে জানিয়ে হাথুরু বলেন,

‘আমি দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই একজন ভালো মানের লেগস্পিনার খুঁজে বেড়িয়েছি। সেই চিন্তা, বোধ এবং দর্শন থেকেই জুবায়ের হোসেন লিখনকে নিয়েছিলা। তার মাঝে আমরা সম্ভাবনা খুঁজে পেয়েছিলাম বলেই তাকে নেয়া।’

এর আগে থেকেই বাংলাদেশ দলে একজন ভালো মানের লেগ স্পিনারের খোঁজে ছিলেন হাথুরুসিংহে। এভাবেই পেয়ে গিয়েছিলেন জুবায়ের হোসেন লিখনকে। লিখনের বোলিং অ্যাকশন পছন্দ হয়েছিলো লঙ্কান এই কোচের।

তবে শুরুতে ভালো করলেও কোচের চাহিদা অনুযায়ী পরবর্তীতে তিনি ভালো বোলিং করতে ব্যর্থ হন। এই কারণে জুবায়েরের থেকে সরে আসেন হাথুরু। এরপর তানবীরকে পেয়ে যান। এই প্রসঙ্গে হাথুরু বলেন,

‘দূর্ভাগ্যজনক ভাবে কিছু কারনে জুবায়ের ভাল করতে পারেনি; কিন্তু আমরা লেগস্পিনারের সন্ধানের মিশন অব্যহত রেখেছি। সেটা অদুর ভবিষ্যতের কথা ভেবেই। আপনি কি ওভালে ইংল্যান্ড কিংবা অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে শুধু মাশরাফি, তাসকিন, মোস্তাফিজ আর সাকিবের বোলিং দিয়ে জিততে পারবেন? তারা কতটা সফল হবে? অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ব্রেক থ্রু আনতে দরকার একজন চৌকষ লেগি। তাই তানবিরের দিকে চোখ রেখেছি আমরা।’

মূলত একজন লেগ স্পিন অলরাউন্ডার হিসেবেই দলে জায়গা পেয়েছেন তানবীর। এমনটাই জানালেন এই লঙ্কান।

‘নির্বাচকরা তাকে দলে নিয়েছে একজন লেগ স্পিনার অলরাউন্ডার হিসেবে। যে ব্যাট করতে পারে। জুবায়ের নিজেকে মেলে ধরতে পারেনি। আমরা সেকেন্ড চয়েজ হিসেবে তানবিরকে ভেবেছি। সেই কারণেই সে এখানে আমাদের সাথে নিউজিল্যান্ডে। আমরা ওকে দেখে নিতে চাই’, বলেন হাথুরু।

ভবিষ্যতের কথা ভেবে তানবীরকে দলে নেয়া হলেও কোচের আস্থার প্রতিদান দিতে পারেন নি এই লেগি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচ খেলে একটি উইকেটও শিকার করতে পারেননি তিনি।

তবে তানবীরের পক্ষেই কথা বললেন হেড কোচ। তাঁর মতে দুই তিন ম্যাচ দিয়ে কোনো বোলারকে বিচার করা যায় না। বললেন,

‘শুরুর দুই-তিন ম্যাচ দেখে কারো জাত, মান ও সামর্থ্য নিয়ে উপসংহারে যাওয়া কী ঠিক? বিশ্বের অনেক বাঘা বাঘা স্পিনারের শুরু দেখেন, ভালো না। প্রথম দিকে নিজেকে খুঁজে পাননি। ধীরে ধীরে প্রতিভার স্ফুরণ ঘটেছে।’

এক্ষেত্রে বিশ্বের সেরা লেগস্পিনার শেন ওয়ার্নের উদাহরন টানলেন হাথুরুসিংহে।  ‘কেউ কেউ বলছেন তানবিরকে খেলানো ব্যাক ফায়ার করেছে। আমি তা মানতে রাজি নই। মোটেই ব্যাকফায়ার করেনি। কেউ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এসেই দুই ম্যাচে ভালো করে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে ফেলবে, এটা তো সম্ভব না! শেন ওয়ার্ন সর্বকালের সেরা লেগ স্পিনার। প্রথম দুই ম্যাচে দেখুন, কিছুই করতে পারেননি!’

তবে শেষ দুই ম্যাচে শুধু তানবীর নন, ভালো পারফর্মেন্স করতে পারেননি অন্যান্য স্পিনাররাও। সেদিকেও আঙ্গুল তুললেন লঙ্কান কোচ। এক্ষেত্রেও তানবীরের সাফাই গাইলেন তিনি। তাঁর ভাষ্য,

‘তানবির প্রথম ম্যাচে খারাপ করেনি। দ্বিতীয় ম্যাচে প্রত্যাশামতো ভালো করেনি, তবে মনে রাখতে হবে আমাদের কোনো স্পিনারই সেদিন ভালো করেনি। কাজে লাগেনি বলে আমরা অবশ্যই হতাশ। তবে আমি কখনোই দুই-এক ম্যাচ দেখে কোনো ক্রিকেটারকে বিচার করি না। ওর মধ্যে কিছু দেখেই আমরা তাকে দলে নিয়েছি।’

 

Facebook Comments
(Visited 1 times, 1 visits today)

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close