ব্রেকিং:
Home » শীর্ষ সংবাদ » আদালতে খালেদা জিয়ার খাবার নিয়ে হট্টগোল!

আদালতে খালেদা জিয়ার খাবার নিয়ে হট্টগোল!

নিউজ ডেস্ক : সকাল থেকে শুনানি হওয়ার পর বেলা ১টা ৪০ মিনিটে আদালত বিরতিতে যান। বেলা আড়াইটার দিকে বিচারক এজলাসে আসার পর বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা হট্টগোল শুরু করেন।

পুরান ঢাকার বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসাসংলগ্ন মাঠে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালত-৩-এর অস্থায়ী এজলাসে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলার শুনানিকালে আদালত চত্বরে এই হট্টগোল হয়। পরে এক আইনজীবী আদালতে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা খালেদা জিয়া অসুস্থ, তিনি দুপুরের খাবার খেতে পারেননি, নামাজও পড়তে পারেননি, ওষুধ খেতে পারেননি—এসব কথা বলতে থাকেন। একপর্যায়ে বিএনপিপন্থী

আইনজীবী হোসেন আলী খান হাসান টেবিল চাপড়াতে থাকেন। বিষয়টি আদালত লক্ষ করেন এবং ওই আইনজীবীকে ক্ষমা না চাইলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন। পরে বিএনপিপন্থী জ্যেষ্ঠ আইনজীবীদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয় ও ওই আইনজীবী নিঃশর্ত ক্ষমা চান।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বিশেষ জজ আদালতে উপস্থিত হন খালেদা জিয়া। আজ জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থন করে খালেদা জিয়ার অসমাপ্ত বক্তব্য উপস্থাপনের তারিখ ধার্য ছিল।

একই সঙ্গে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায়ও আসামিদের আত্মপক্ষ সমর্থনের দিন ধার্য ছিল। তবে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা এ মামলায় নতুন করে একজনের সাক্ষ্য নেওয়ার আবেদন জানালে আদালত তা মঞ্জুর করেন। ফলে এ মামলায় আজ আত্মপক্ষ সমর্থন হয়নি।

বিরতি চলাকালে আদালত কক্ষে খালেদা জিয়াকে চা-বিস্কুট খেতে দেখা যায়। আর আদালতে উপস্থিত বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসসহ জ্যেষ্ঠ নেতাদের কলা-রুটি দিয়ে দুপুরের খাবার সারতে দেখা যায়।

বেলা আড়াইটার দিকে বিচারক এজলাসে এলে ওই হট্টগোলের ঘটনা ঘটে। বেলা তিনটার দিকে আদালত মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য ১২ জানুয়ারি তারিখ ধার্য করেন। এরপর খালেদা জিয়াও আদালত ত্যাগ করেন।

 

Facebook Comments
(Visited 1 times, 1 visits today)

মন্তব্য

আপনার ইমেইল গোপন থাকবে - আপনার নাম এবং ইমেইল দিয়ে মন্তব্য করুন, মন্তব্যের জন্য ওয়েবসাইট আবশ্যক নয়

*

Open

Close