শীতলক্ষ্যা নদীতে লঞ্চ ডুবির ঘটনায় নিহত পরিবারের পাশে জামায়াতে ইসলামী

0

সরকার তার সঠিক দায়িত্ব পালন করছে না, এটা আমাদের জন্য দুর্ভাগ্য, ৪ এপ্রিল রবিবার সন্ধ্যায় শীতলক্ষ্যা নদীতে কার্গো জাহাজের ধাক্কায় একটি যাত্রীবাহী লঞ্চ ডুবে নারী-শিশু ও বৃদ্ধসহ মোট ৩৪ জন নিহত হয়েছেন। ১১ এপ্রিল সকাল ৯টায় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর পক্ষ থেকে নিহতদের পরিবারের সদস্যদের মাঝে মুন্সীগঞ্জ সদরের একটি অডিটোরিয়ামে নগদ আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়। নিহতদের পরিবারের সাথে সশরীরে সাক্ষাত করে এ সহযোগিতা প্রদান করেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার।

আর্থিক সহযোগিতা প্রদান অনুষ্ঠানে অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার বলেন, “রাসূল (সা.)-এর আদর্শ হলো সকল বিপদাপদে মানুষের পাশে দাঁড়ানো। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী সেই আদর্শ লালন করে বলেই সম্মানিত আমীরে জামায়াতের নির্দেশে আমরা শীতলক্ষ্যা নদীতে লঞ্চ ডুবির ঘটনায় নিহত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছি। প্রকৃতপক্ষে এই কার্যক্রম পরিচালনার মূল দায়িত্ব ছিল সরকারের। কিন্তু সরকার তাদের সেই দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করছে না। এটা আমাদের জন্য দুর্ভাগ্য।”

তিনি আরো বলেন, “দুর্ঘটনার জন্য দায়ী কার্গোর ১৪ জনকে আটক করা হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। কিন্তু কার্গোর মালিক একজন সংসদ সদস্য হওয়ায় দায়েরকৃত মামলায় তার নাম নেই। এতে স্পষ্ট বুঝা যাচ্ছে বর্তমান সরকার আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় আন্তরিক নয়। আমি নিহতদের রূহের মাগফিরাত কামনা করছি এবং তাদের শহীদ হিসেবে কবুল করার জন্য মহান রবের নিকট প্রার্থনা করছি। সেই সাথে নিহতদের পরিবারকে উপযুক্ত আর্থিক ক্ষতিপূরণ প্রদান করার জন্য সংশ্লিষ্ট মহলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি এবং এই দুর্ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় এনে ন্যায় বিচারের দাবি জানাচ্ছি।”

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী মুন্সীগঞ্জ জেলা শাখার আমীর মাওলানা আব্দুল আউয়াল জেহাদীর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার সদস্য ও নারায়ণগঞ্জ মহানগীর সেক্রেটারি আবু রাকিব, সদর আমীর নূরুল আমিন সিকদার, মিরকাদিম পৌরসভার আমীর ডা: ইব্রাহীম দেওয়ান, সদর থানা কর্মপরিষদ সদস্য সানাউল হক মৃধা,

জসিম উদ্দিন, ইব্রাহীম খলিলসহ অন্যান্য স্থানীয় জামায়াত নেতা-কর্মী। নিহত ১৯টি পরিবারের মধ্যে ৯টি পরিবারের সদস্য উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তাদের মধ্যে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়। অনুপস্থিত বাকীদের মাঝেও পর্যায়ক্রমে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন জামায়াতে ইসলামী মুন্সীগঞ্জ জেলা শাখার আমীর মাওলানা আবদুল আউয়াল জেহাদী।

Leave A Reply