সেজান জুস কারখানার অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের পরিবারের পাশে জামায়াতে ইসলামী

0

নারায়ণগঞ্জ জেলার সেজান জুস ফ্যাক্টরিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের স্বজনদের সহযোগিতার জন্য জেলা জামায়াতের উদ্যোগে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জেলা আমীর জনাব মমিনুল হকের সভাপতিত্বে ও জেলা সেক্রেটারি মোঃ জাকির হোসাইনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল Maulana Abdul Halim বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক শিবির সভাপতি ও ঢাকা অঞ্চল দক্ষিণের টিম সদস্য মাওলানা Abdul Zabbar এবং জেলা নেতৃবৃন্দ।

প্রধান মেহমান মাওলানা আবদুল হালিম নিহতদের মাগফেরাতে জন্য দোয়া করেন এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, “সেজান জুসে অগ্নিকাণ্ডের পরপর আমীরে জামায়াত Dr. Shafiqur Rahman আগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজ-খবর নেন এবং সর্বাত্মক সহযোগিতা করার জন্য কেন্দ্রীয় ও জেলা সংগঠনকে নির্দেশ প্রদান করেন।

আমীরে জামায়াতের পক্ষ থেকে আপনাদের জন্য আমরা কিছু আর্থিক সহায়তা নিয়ে উপস্থিত হয়েছি।”
মাওলানা আবদুল হালিম আরো বলেন, “জামায়াতে ইসলামী সব সময়ই আর্ত-মানবতার সেবায় ভূমিকা পালন করে আসছে। ঘুর্ণিঝড়, বন্যাসহ দেশের বিভিন্ন দুর্যোগে জামায়াতে ইসলামী ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে ছুটে আসে এবং তাদের আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করে থাকে।

তারই ধারাবাহিকতাই আজ আমরা আপনাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। আপনাদের ক্ষতির তুলনায় আমাদের সহায়তা খুবই কম। দোয়া করবেন আমরা যেন ভবিষ্যতেও আমাদের সামর্থানুযায়ী ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারি।”

বিশেষ মেহমান আব্দুল জব্বার বলেন, “আল্লাহ তাআলা যখন কোথাও মানব গোষ্ঠীকে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দেন তখন তারা নামাজ কায়েম করবেন, জাকাত আদায় করবেন, সৎ কাজের আদেশ দিবেন এবং অসৎ কাজের নিষেধ করবেন। আসুন আমরা বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীকে সহযোগিতা করে আল্লাহর জমিনে আল্লাহর আইন প্রতিষ্ঠায় সামিল হই।”

এ সময় নিহত ১৪ জনের পরিবারের অভিভাবকের কাছে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়। জেলা আমীর উপস্থিত সবাইকে আন্তরিক মোবারকবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্ত ঘোষণা করেন।

Leave A Reply